শ্রীনগর মেডিকেল কলেজের ১০০ জন শিক্ষার্থীর ডিগ্রি বাতিল হওয়ার খবরটি ভুয়ো

False Social

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একটি ছবি শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, পাকিস্তান জিন্দাবাদ স্লোগান দেওয়ার জন্য কাশ্মীরের শ্রীনগর মেডিকেল কলেজ ১০০ জন ছাত্রীর ডিগ্রি বাতিল করল। পোস্টের ছবিতে দেখা যাচ্ছে হিজাব পরিহিত অনেকগুলি মেয়ে সারিবদ্ধ ভাবে একটি মাঠের মধ্যে দাড়িয়ে রয়েছে। 

পোস্টের ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, “পাকিস্তান জিন্দাবাদ বলায় জম্বু কাশ্মীরে ১০০ সুন্দরী আর ডাক্তার হতে পারলো না 🤗 ডিগ্ৰি বাতিল করে দিয়েছে সরকার😌😌।” 

তথ্য যাচাই করে আমরা জানতে পারি পোস্টের মাধ্যমে করা দাবি ভুয়ো। শ্রীনগর মেডিকেল কলেজের ১০০ জন শিক্ষার্থীর ডিগ্রি বাতিল হওয়ার খবরটি ভুয়ো। 

ফেসবুক পোস্ট আর্কাইভ 
ফেসবুক পোস্ট আর্কাইভ 

আইসিসি টি২০ বিশ্বকাপে ২৪ অক্টোবর ভারত ও পাকিস্তান মুখোমুখি হয়। পাকিস্তান ১০ উইকেটে এই ম্যাচে জয়ী হয়। পাকিস্তানের জয়কে কেন্দ্র করে উচ্ছাস প্রকাশের এবং পাকিস্তান জিন্দাবাদ স্লোগান দেওয়ার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। ভিডিওটি কাশ্মীরের শ্রীনগরের একটি মেডিকেল কলেজের ভিডিও বলে দাবি করা হয়। 

তথ্য যাচাইঃ 

পোস্টের দাবির সত্যতা যাচাই করতে প্রথমে আমরা প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চ করা হয়। ফলাফলে নির্ভরযোগ্য কোনও খবর পাওয়া যায় না যেখানে ১০০ জন ডাক্তারি পড়ুয়ার ডিগ্রী বাতিল করার কথা উল্লেখ রয়েছে। 

হিন্দি সংবাদ মাধ্যম ‘জনসত্তা’-এর ২৬ অক্টোবর, ২০২১, তারিখের প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, শ্রীনগরের দুটি মেডিকেল কলেজের – শ্রীনগর সরকারি মেডিকেল কলেজ এবং শের-ই-কাশ্মীর ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সেস শ্রীনগর (SKIMS) – শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের জয় উদযাপন ও ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ’ স্লোগান তোলার অভিযোগ আসে।  

ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো SKIMS কলেজের সাথে যোগাযোগ করে। কলেজ আমাদের জানায়,  “SKIMS কলেজে এমন কোনও ঘটনা ঘটেনি। পাকিস্তান জয়ের পর পাকিস্তান জিন্দাবাদ জাতীয় কোনও স্লোগান শোনা যায়নি। ইন্টারনেটে ভাইরাল হওয়া ভিডিওগুলোর কোনোটিতেই আমাদের কলেজের শিক্ষার্থীরা নেই।”

এরপর ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো শ্রীনগর সরকারি মেডিকেল কলেজের সভাপতি ডা. সৈয়দ সাজাদ নাজিরের সাথে যোগাযোগ করে। তিনি আমাদের বলেন, “এই খবরটি ভুয়ো। সরকার কোনও ছাত্র বা ছাত্রীর ডিগ্রি বাতিল করতে পারে না। ইন্টারনেটে খবরটি ভুলভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে।” 

ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো স্বাধীন সাংবাদিক বাসিত জারগার-এর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, “ভাইরাল হওয়া দাবিটি সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং ভুয়ো। মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষার্থীদের ডিগ্রি বাতিল করার কোনও খবর পাওয়া যায়নি।” 

ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো জম্মু ও কাশ্মীর ছাত্র ইউনিয়নের মুখপাত্র নাসির খুহমির সাথে যোগাযোগ করে। তিনি আমাদের জানান, “বিষয়টি এখনও তদন্তাধীন। সরকার এখনও এজাতীয় কোনও সিদ্ধান্তে আসেনি। ১০০ জন ডাক্তার ছাত্রীর ডিগ্রী বাতিল করা হয়েছে, এই দাবিটি ভুয়ো।” 

তিনি আরও বলেন, “এই মামলার তদন্তের সময় পুলিশ জানতে পেরেছে যে SKIMS কলেজে পাকিস্তানের জয় উদযাপন এবং পাকিস্তান জিন্দাবাদ স্লোগান দেওয়ার কোনও মামলা তাদের কাছে আসেনি। পুলিশ জানতে পেরেছে ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি SKIMS কলেজের নয়। সরকারি মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে আসা অভিযোগ নিয়ে এখনও তদন্ত চলছে।” 

এই সমস্ত প্রমাণ থেকে স্পষ্ট ভাবে বলতে পারি ১০০ জন মেডিকেল ছাত্রীর ডিগ্রী বাতিল করার দাবিটি বিভ্রান্তিকর এবং পুরোটাই কাল্পনিক।

পোস্টে থাকা ছবিটির আসল উৎস খোঁজার উদ্ধেশ্যে ছবিটিকে গুগল রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। ফলে সংবাদ মাধ্যম ‘বিডিসি নিউজ’-এর ১২ নভেম্বর, ২০১৭, তারিখের প্রতিবেদন এর অনুসন্ধান পাওয়া যায়। প্রতিবেদন থেকে জানতে পারি, এটি উত্তরপ্রদেশের আজমগড় জেলার দাউদপুর গ্রামের ফাতিমা গার্লস ইন্টার কলেজের ছাত্রীদের সকালের জমায়েতের দৃশ্য।  

এই একই দাবি হিন্দি এবং ওড়িয়া ভাষাতেও ভাইরাল হয়। ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো হিন্দি এবং ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো ওড়িয়া তার সত্যতা যাচাই করে এই দাবিগুলিকে ভুল প্রমাণ করে। ফ্যাক্ট চেকগুলি পড়ুন এখানে এবং এখানে। 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। শ্রীনগর মেডিকেল কলেজের ১০০ জন শিক্ষার্থীর ডিগ্রি বাতিল হওয়ার খবরটি ভুয়ো।

Avatar

Title:শ্রীনগর মেডিকেল কলেজের ১০০ জন শিক্ষার্থীর ডিগ্রি বাতিল হওয়ার খবরটি ভুয়ো

Fact Check By: Nasim A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published.