উত্তরবঙ্গ সংবাদপত্রের ছবিকে সম্পাদিত করে বিভ্রান্তিকর দাবির সাথে শেয়ার

False Political

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় উত্তরবঙ্গ সংবাদপত্রের একটি সম্পাদিত ছবি শেয়ার করে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করা হচ্ছে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে উত্তরবঙ্গ সংবাদপত্রের প্রথম পাতার মুখ্য খবরের শিরোনামে লেখা রয়েছে, দেশছাড়া হওয়ার আশঙ্কা রাজবংশীদের। তার নিচেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর ছবি দেওয়া রয়েছে। সম্প্রতি পাশ হওয়া নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন এবং এনআরসি-এর পরিপেক্ষিতেই এই পোস্টটিকে শেয়ার করা হচ্ছে। 

উল্লেখ্য, রাজবংশী জনজাতির মানুষরা প্রধানত পশ্চিমবঙ্গের ছয়টি জেলায় বসবাস করে। পশ্চিমবঙ্গর ছয় জেলা, তথা কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, দার্জিলিং জেলার সমতল অঞ্চল, উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর ও মালদহ জেলার কিছু অংশে এরা বিদ্যামান। এই জনজাতির নিজস্ব লোকেরা কামতাপুরী বা রাজবংশী ভাষায় কথা বলে। 

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি ভুয়ো এবং বিভ্রান্তিকর।

Uttarbanga claim.png
ফেসবুক পোস্টআর্কাইভ 
Uttar Banga.png
ফেসবুক পোস্ট আর্কাইভ 

তথ্য যাচাই 

শুরুতেই বিভিন্ন রকম কিওয়ার্ড সার্চ করে এবং রিভার্স সার্চ করে যথাযথ তথ্য পাওয়া যায় না। এরপর আমরা উত্তরবঙ্গ সংবাদপত্রের একজন সাংবাদিকের সাথে যোগাযোগ করি। তিনি আমাদের জানান, এই বিষয়ে তারা অবগত এবং ৪ জানুয়ারি উত্তরবঙ্গ সংবাদপত্র এই ছবিটিকে ভুয়ো বলে এই মর্মে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। 

এরপর উত্তরবঙ্গ সংবাদপত্রের ৪ জানুয়ারি সংস্করণের ১২ নং পাতায় একটি প্রতিবেদন দেখতে পাই যার শিরোনামে লেখা রয়েছে, “ভুয়ো খবর থেকে সতর্ক হন যাচাই করতে শিখুন”। এই প্রতিবেদনে ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পাতাটির ছবি দেওয়া রয়েছে। সংবাদপত্র কতৃপক্ষ স্পষ্ট করে জানিয়ে দেন এই ছবিটি সম্পাদিত। 

UB.png
উত্তরবঙ্গ প্রতিবেদন আর্কাইভ 

এরপর এই প্রতিবেদনে থেকে কিছু শব্দ নিয়ে কিওয়ার্ড সার্চ করে সংবাদমাধ্যম ‘বুম লাইভ বাংলা’র ২০১৯ সালের একটি প্রতিবেদনে পোস্টের সম্পাদিত ছবিটিকে দেখতে পাই সঙ্গে আসল ছবিটিকেও দেখতে পাওয়া যায়। জানতে পারি, উত্তরবঙ্গ সংবাদের ২০১৯ সালের ২২ নভেম্বর সংস্করণের প্রথম পাতার ছবিকে সম্পাদিত করে শিরোনাম ও ছবি বদল করা হয়েছে। আসল শিরোনামে লেখা রয়েছে ‘রাজ্যপালের বিরুদ্ধে বলতে দপ্তর খুলুন’ এবং নিচে অমিত শাহর ছবির যায়গায় অন্য একটি ছবি রয়েছে। 

download.png

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল। উত্তরবঙ্গ সংবাদপত্রের ২০১৯ সালের ২২ নভেম্বর সংস্করণের প্রথম পাতার ছবিকে সম্পাদিত করে বিভ্রান্তিকর দাবির সাথে শেয়ার করা হচ্ছে। 

Avatar

Title:উত্তরবঙ্গ সংবাদপত্রের ছবিকে সম্পাদিত করে বিভ্রান্তিকর দাবির সাথে শেয়ার

Fact Check By: Rahul A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *