ডিজিটালি নির্মিত ভিডিওকে মিশরের আলৌকিক ঘটনা দাবিতে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল 

False International

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একটি ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, মিশরের কায়রোতে আকাশে ভাসমান স্বচ্ছ আলৌকিক বস্তু দেখা যাচ্ছে। পোস্টের ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে মধ্য আকাশে মেঘের কাছে একটি চিত্র ভাসছে। পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “মিশরের কায়রো তে এমন দৃশ্য দেখে মানুষ অবাক! 😱।“ 

তথ্য যাচাই করে আমরা জানতে পারি পোস্টের দাবি ভুয়ো ও বিভ্রান্তিকর। ব্রাজিলের কম্পিউটার গ্রাফিক্স শিল্পী জেসেন কার্লোস দ্বারা ডিজিটালি নির্মিত ভিডিওকে বিভ্রান্তিকর দাবির সাথে যুক্ত করে ভাইরাল করা হচ্ছে। 

ফেসবুক পোস্ট 

তথ্য যাচাই 

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে আমরা ভিডিওটিকে ইনভিড টুলের মাধ্যমে কি ফ্রেমে ভেঙ্গে গুগল রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। ফলাফলে, তথ্য যাচায় সংস্থা “AFB factcheck” এর একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাই। সেখানে জানানো হয় ভাইরাল এই ভিডিওটি ব্রাজিলিয়ান কম্পিউটার গ্রাফিক্স শিল্পী জেসেন কার্লোস দ্বারা ডিজিটাল ভাবে নির্মিত। 

এই সুত্র ধরে “জেসেন কার্লোস” নামের ব্যাক্তির বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া আকাউন্ট খুঁজতে গিয়ে তার ইন্সতাগ্রাম প্রোফাইলে ডিজিটাল ভাবে নির্মিত অন্যান্য অনেকগুলি ভিডিও দেখতে পাই। ভাইরাল এই ভিডিওটিও তাদের মধ্যে একটি। ভিডিওটি ২০১৯ সালের ২৭ জুলাই তারিখে পোস্ট করা হয়েছিল। পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে “ আকাশে দেবদূত, জেসেন কার্লোসের শিল্প।“

২০১৯ সালের ১৭ ডিসেম্বর তারিখের একটি ভিডিও পোস্ট করে ও ক্যাপশনের মাধ্যমে জানিয়েছে “রাজকীয় আবির্ভাব দেবদূত, ভিডিও যেখানে আমি চরিত্র তৈরির প্রক্রিয়া দেখাই, জেসেন কার্লোসের শিল্প।“  ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে সে কম্পিউটার স্ক্রিনে বিভিন্ন কারুকার্যের মাধ্যমে এই ভিডিও তৈরি করেছে। 

উপোরক্ত প্রমানের সাপেক্ষে স্পষ্ট বলা যায়, ভাইরাল এই ভিডিওটির বাস্তব অস্তিত্ব নেই এবং এটি ডিজিটাল টুলের মাধ্যমে সম্পাদিত। 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। ব্রাজিলের কম্পিউটার গ্রাফিক্স শিল্পী জেসেন কার্লোস দ্বারা ডিজিটাল ভাবে নির্মিত ভিডিওকে বিভ্রান্তিকর দাবির সাথে যুক্ত করে ভাইরাল করা হচ্ছে

Avatar

Title:ডিজিটালি নির্মিত ভিডিওকে মিশরের আলৌকিক ঘটনা দাবিতে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল

Fact Check By: Nasim A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published.