না, কৃষকদের দেখে পালাতে গিয়ে মঞ্চ থেকে পড়ে যাননি অমিত শাহ

False Political

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পুরনো ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, কলকাতায় কৃষকদের দেখে পালাতে গিয়ে মঞ্চ থেকে পড়ে গেলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে একটি মঞ্চ জাতীয় উঁচু জায়গা থেকে বেসামাল হয়ে পড়ে যাচ্ছেন শাহকে এবং তার সমর্থকরা তাকে নিচ সাহায্য করার জন্য এগিয়ে যাচ্ছেন। পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “কলকাতার কৃষকদের দেখে দৌঁড়াতে দৌঁড়াতে মঞ্চ থেকে পড়ে গেলেন অমিত শাহ । 🤷🤷 সূত্রের খবর, পড়ে গিয়ে অমিত বাবুর শারীরিক ব্যাথার চে মনে ব্যাথা বেশি হয়েছে ।🙆🙆 সকল বিজেপি কর্মীর কাছে অনুরোধ যথা শীঘ্রই সম্ভব মলম কিনে পৌঁছান ।😬😬 #Excuse_Me m”।

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি ভুয়ো এবং বিভ্রান্তিকর। মধ্যপ্রদেশের অশোক নগরের ২০১৮ সালের একটি ঘটনাকে ভুল দাবির সাথে ভাইরাল করা হচ্ছে। 

ফেসবুক পোস্ট

উল্লেখ্য, চলতি মাসের ১৮ ফেব্রুয়ারি একুশের নির্বাচনের প্রচারে বাংলায় এসেছিলেন অমিত শাহ। দাবি করা হচ্ছে, এই ভিডিওটি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এই বঙ্গ সফরের ঘটনা। 

তথ্য যাচাই    

ভিডিওটিকে ‘ইনভিড-উই-ভেরিফাই’ টুলে কয়েকটি ফ্রেমে ভাগ করে গুগলে রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। ফলাফলে সংবাদমাধ্যম ‘ইন্ডিয়া টুডে’র ২০১৮ সালের ২৬ নভেম্বরের একটি প্রতিবেদনে এই ভিডিওটিকে দেখতে পাই। এই ভিডিও প্রতিবেদনে শীর্ষকে লেখা রয়েছে, “নির্বাচনের সভায় মঞ্চ থেকে পড়ে গেলেন অমিত শাহ”। 

Shah fell off.png
প্রতিবেদনআর্কাইভ

এরপর কিওয়ার্ড সার্চ করে সংবাদমাধ্যম ‘দ্যা টাইমস অফ ইন্ডিয়া’র একটি ইউটিউব চ্যানলে এই ভিডিওটি দেখতে পাই। ২০১৮ সালের ২৪ নভেম্বর এটি আপলোড করা হয়েছে। শিরোনামে লেখা রয়েছে, “মধ্যপ্রদেশের র‍্যালিতে মঞ্চ থেকে পড়ে গেলেন অমিত শাহ”। 

‘দ্যা টাইমস অফ ইন্ডিয়া’র একটি প্রতিবেদন থেকে জানতে পারি, ২০১৮ সালের ২৪ নভেম্বর নির্বাচনী প্রচারে মধ্যপ্রদেশের অশোক নগরে যান অমিত শাহ। সেখানেই তিনি একটি মঞ্চ থেকে পা হড়কে পড়ে যান। 

MP.png
প্রতিবেদনআর্কাইভ

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল। মধ্যপ্রদেশের অশোকনগরের ২০১৮ সালের একটি ঘটনাকে ভুল দাবির সাথে ভাইরাল করা হচ্ছে

Avatar

Title:না, কৃষকদের দেখে পালাতে গিয়ে মঞ্চ থেকে পড়ে যাননি অমিত শাহ

Fact Check By: Rahul A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *