‘Boycott China’ লেখা পোশাক উৎপাদন করে ভারতে রপ্তানি করছে চিন? জানুন সত্যতা

False Social

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, চিন নিজেই ‘Boycott China’ লেখা পোশাক উৎপাদন করে ভারতকে বিক্রি করছে। পোস্টে বয়কট চিন লেখা একটি টুপি রয়েছে এবং আরেকটি ছবিতে ‘Made in China’ লেখা রয়েছে। গ্রাফিক্সে লেখা রয়েছে, “Boycott China লেখা পোশাক উৎপাদনকারী চীন নিজেই ‘বয়কট চিন’ স্লোগান দেওয়া টি-শার্ট, টুপির এখন দারুন চাহিদা ভারতে। চীনের এই টি-শার্ট এবং টুপিগুলি তৈরি করা হচ্ছে। চীনের তৈরি টিশার্ট পরেই ভারতীয়রা চীনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাচ্ছে। অর্থাৎ, সেই প্রতিবাদের মাধ্যমে আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছে চীনই।”

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি ভুল এবং বিভ্রান্তিকর। ‘Boycott China’ লেখা পোশাক উৎপাদন করেনা চিন।  

ফেসবুক পোস্টআর্কাইভ

তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে প্রথমে প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চ করি। ফলাফলে দেখতে পাই ২০২০ সালে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো ইংরেজি এই একই দাবির সত্যতা যাচাই করে সেটিকে ভুয়ো প্রমাণ করে। 

উপরোক্ত প্রতিবেদন থেকে জানতে পারি, এই ভুয়ো খবরের সূত্রপাত হয় একটি ব্যাঙ্গাত্মক প্রতিবেদন থেকে। The Fauxy হল একটি নিউজ ওয়েবসাইট যারা কৌতুক বা ব্যাঙ্গাত্মক জাতীয় প্রতিবেদন প্রকাশ করে। ২০২০ সালের ১ জুন তারিখে এই ওয়েবসাইটে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে দাবি করা হয়, ‘বয়কট চিন’ লেখা পোশাক উৎপাদন করছে চিন নিজেই। আমরা The Fauxy -এর টুইটার এবং ইন্সতাগ্রাম হ্যান্ডেল খুঁজে বের করি। দেখতে পাই বায়োতে স্পষ্ট লেখা রয়েছে এটি একটি স্যাটায়ার ওয়েবসাইট।

এরপর প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চ করে চিনা সংবাদমাধ্যম ‘গ্লোবাল টাইমস’-এর টুইটার হ্যান্ডেলে এই বিষয়ক একটি পোস্ট দেখতে পাই। ২০২০ সালের ২৩ জুন তারিখের এই টুইটে স্পষ্ট করা হয়, সূত্র অনুযায়ী ভারতে পাওয়া ‘বয়কট চিন’ পোশাক চিন উৎপাদন করেনি। ভারতের কোনও বিক্রেতা চিন থেকে আমদান করা সাধারণ টি- শার্ট এবং টুপিতে ‘বয়কট’ চিন প্রিন্ট করেছে। 

গ্লোবাল টাইমস-এর ওয়েবসাইটেই এই বিষয়ক একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাই। এই প্রতিবেদন থেকে জানতে পারি, ইউইউ ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড সিটির একজন ব্যবস্থাপক সং চেন (ছদ্মনাম), গ্লোবাল টাইমসকে বলেছেন যে একটি সম্ভাবনা হল ভারতীয় বিক্রেতারা চীন থেকে আমদানি করা সাধারণ টি-শার্ট এবং ক্যাপগুলিতে স্লোগানগুলি প্রিন্ট করেছে। বেশ কিছু টেক্সটাইল পণ্য রপ্তানিকারক গ্লোবাল টাইমসকে বলেছেন যে তারা ‘বয়কট চিন’ লেখা পণ্য কখনই তৈরি বা বিক্রি করেনি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চিনা আইন অনুযায়ী চিন বিরোধী মনোভাব প্রচার করে এমন পণ্য রপ্তানি নিষিদ্ধ।

উপরোক্ত সমস্ত তথ্য এবং প্রমাণ থেকে স্পষ্ট হয়ে যায় যে ভাইরাল দাবিটি ভুয়ো। 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিস্যান্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। ‘Boycott China’ লেখা কোনও পণ্যই উৎপাদন করেনা চিন।  

Avatar

Title:‘Boycott China’ লেখা পোশাক উৎপাদন করে ভারতে রপ্তানি করছে চিন? জানুন সত্যতা

Fact Check By: Rahul A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published.