কাঁদানে গ্যাসের ক্যানে লাথি মারার ভিডিওটি বিজেপির নবান্ন অভিযানের ঘটনার নয়

False Political

বঙ্গবিজেপির ৮ অক্টোবরের বিজেপির যুব মোর্চার নবান্ন অভিযান ঘিরে ধুন্ধুমার কাণ্ড বাঁধে হাওড়ায় ৷ বিজেপির নবান্ন অভিযান শুরুতেই লাঠিচার্জের অভিযোগ ওঠে৷ বিজেপিকর্মীরা ব্যারিকেড ভেঙে এগোনোর চেষ্টা করলে সাঁতরাগাছি, হেস্টিংস মোড়ে পুলিশ লাঠিচার্জ করে বলে জানা গিয়েছে ৷ পাল্টা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইঁট ছোড়ে বিজেপিকর্মীরা ৷ সেই পরিস্থিতি মোকাবিলায় কাঁদানে গ্যাসের সেল ফাটায় পুলিশ ৷ ছোড়া হয় জলকামানও ৷ 

এই ঘটনাকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া বিভিন্ন রকম ভুয়ো পোস্ট করে বিভ্রান্তির সৃষ্টি করার চেষ্টা করা হয়। এমনই একটি ভুয়ো পোস্টের উদাহরণ হল নিচে দেওয়া ভিডিওটি যেখানে দেখা যাচ্ছে একজন লোক পুলিশের ছোঁড়া কাদানে গ্যাসের ক্যানে লাথি মারছে। দাবি করা হচ্ছে এটি বিজেপির ৮ অক্টোবরের নবান্ন অভিযানের ঘটনার ভিডিও। এই পোস্টটির ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি কর্মীদের সালাম! যেন সশস্ত্র শত্রুদের সাথে তারা সীমান্তে লড়াই করছে! কাঁদানে গ্যাসকেও পরাজিত করলেন বিজেপি যুব সদস্যরা”

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি ভুয়ো এবং বিভ্রান্তিকর। এই ভিডিওটি ভারতের নয় এবং এর সাথে বিজেপির কোনও সম্পর্ক নেই।  

ফেসবুক আর্কাইভ 

তথ্য যাচাই 

ভিডিওটিকে ইনভিড টুলে কয়েকটি ফ্রেমে ভাগ করে রিভার্স ইমেজ সার্চ করে ২০২০ সালের ৮ অক্টোবর শেয়ার করা একটি টুইটে এর অনুসন্ধান পাওয়া যায়। জানা যায়, এটি ইন্দোনেশিয়ার একটি ঘটনার ভিডিও। 

আর্কাইভ

এরপর আরও কিওয়ার্ড সার্চ করে দেখতে এই ভিডিওটিকে ৮ অক্টোবর ইউটিউবেও আপলোড করা হয়েছে। শীর্ষকে ইন্দোনেশিয়ান ভাষায় লেখা রয়েছে, “#ভাইরাল #বেরিতাহারিনী সর্বশেষ খবর – জিব্রিটট্ট …. ছাত্রদের বিক্ষোভ টিয়ার গ্যাসকে পিছু হটাচ্ছে”  

টুইটার এবং ইউটিউবের ভিডিও দুটির কোয়ালিটি ভাইরাল হওয়া ভিডিওটির তুলনায় স্পষ্ট হওয়ায় আমরা ভিডিওটির মধ্যে একটি ট্রাক দেখতে পাই যার ওপরে “পোলিসি” লেখা রয়েছে। এরপর গুগলে ইন্দোনেশিয়ার পুলিশ ট্রাক সার্চ করতেই ফলাফলে যে সমস্ত ছবি দেখতে পাই তার সাথে ভিডিওর ট্রাকের মিল স্পষ্ট লক্ষ করা যায়।

ভিডিও ট্রাকের ছবি এবং গুগল সার্চের ফলাফলের ছবি পাশাপাশি রেখে আরও নিশ্চিত হওয়া যায়।

Comparison image.png

গুগলে কিওয়ার্ড সার্চ করে সংবাদমাধ্যম ‘আল জাজিরা’ –এর একটি প্রতিবেদন (আর্কাইভ) থেকে জানতে পারি, ইন্দোনেশিয়ায় নতুন রোজগার আইনের বিরোধিতায় দেশব্যাপী বিক্ষোভ শুরু হয়েছিল। ৮ অক্টোবর এই বিক্ষোভের তৃতীয় দিন ছিল।  

এই ঘটনাটির লোকেশন আরও স্পষ্ট ভাবে জানতে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো ইন্দোনেশিয়ার ফ্যাক্ট চেকিং সংবাদমাধ্যম ‘মাসিয়ারাকাট অ্যান্টি ফিতনাহ ইন্দোনেশিয়া’-এর আরবোবো সস্মিতোর সাথে যোগাযোগ করে। তিনি আমাদের এই ভিডিওটির ঘটনা সম্বন্ধে বেশ কিছু তথ্য পাঠান। 

রিড.আইডি নামে একটি ওয়েবসাইট থেকে আরও জানতে পারি, এটি অমনিবাস আইনের বিরুদ্ধে গোরন্টোলোতে বিক্ষোভ প্রদর্শনের ভিডিও। 

নিচে গুগল স্ট্রিট ভিউতে গোরন্টোলোর ওই বিক্ষোভ প্রদর্শনের যায়গাটি দেখতে পাবেন। 

স্ট্রিট ভিউ তে আমরা একটি হলুদ রঙের দেওয়াল দেখতে পাই। এই একই দেওয়ালটি ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিতেও দেখতে পাওয়া যায়। 

Indo comparison.jpg

উপরোক্ত তথ্য ও প্রমানের সাহায্যে স্পষ্ট হয়ে যায় এটি ইন্দোনেশিয়ার ভিডিও। 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল। ইন্দোনেশিয়ার ৮ অক্টোবরের একটি বিক্ষোভের ভিডিওকে বিজেপির নবান্ন অভিযানের ভিডিও দাবি করে ভুয়ো পোস্ট শেয়ার করা হচ্ছে।

Avatar

Title:কাঁদানে গ্যাসের ক্যানে লাথি মারার ভিডিওটি বিজেপির নবান্ন অভিযানের ঘটনার নয়

Fact Check By: Rahul A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *