চুরির অভিযোগে ধৃত নাবালককে মারধরের পুরনো ভিডিওকে ভুয়ো দাবির সাথে ভাইরাল 

False National

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একটি ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, সোশ্যাল মিডিয়ায় পাকিস্তান জিন্দাবাদ স্লোগান দেওয়ায় যুবককে মারধোর করছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। ৩২ সেকেন্ডের এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে দুইজন পুলিশকর্মী একজন যুবককে নির্মমভাবে মারছে। 

পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “আসল খেলা উত্তরপ্রদেশের শুরু হয়ে গেছে হিন্দুস্থানে থেকে পাকিস্তান জিন্দাবাদ স্লোগান দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে নিজেকে হিরো মনে করছিলো। তারপর উত্তর প্রদেশের পুলিশ এসে।” 

তথ্য যাচাই করে আমরা জানতে পারি পোস্টের দাবি ভুয়ো ও বিভ্রান্তিকর। চুরির অভিযোগে ধৃত নাবালককে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের মারধরের পুরনো ভিডিওকে বিভ্রান্তিকর দাবির সাথে ভাইরাল করা হচ্ছে।  

ফেসবুক পোস্ট 

তথ্য যাচাই 

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে আমরা প্রথমে গুগলে প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চ করি। সংবাদমাধ্যম ‘অমর উজালা’র ২০২১ সালের ২ মে তারিখের প্রতিবেদনে এই ভিডিও কেন্দ্রিক একটি প্রতিবেদন খুঁজে পাই। প্রতিবেদন অনুযায়ী, ঘটনাটি উত্তরপ্রদেশের চন্দৌলি জেলার। চুরির অপরাধে তিন নাবালক যুবককে গ্রেফাতার করে পুলিশ। পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ও কনস্টেবল একজন যুবককে বেধড়ক মারধর করে। এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পরেই চন্দৌলির এসপি ভিডিওতে দেখতে পাওয়া দুই পুলিশ কর্মীকে সাসপেন্ড করে। প্রতিবেদনটি এখানে পড়ুন।  

আর্কাইভ 

৩ মে ২০২১, তারিখের ’জাগরন’-এর প্রতিবেদনেই একই কথা বলা হয়।  

ফ্যাক্ট ক্রিসেণ্ডো চন্দৌলির এসপির রামপ্রীত কুমার সাথে যোগাযোগ করে। তিনি আমাদের জানান, “ভিডিওটি সম্প্রতির নয় এবং এখানে পাকিস্তানপন্থী স্লোগান তোলার কোনও ঘটনা ঘটেনি। ভিডিওতে দেখতে পাওয়া দুই অফিসারকেই ঘটনাটি ঘটার পর গত বছর বরখাস্ত করা হয়েছিল। ভিডিওটির সাথে সম্পর্কিত তাদের টুইটার হ্যান্ডেলে একটি স্পষ্টীকরণও জারি করেছে চাঁদৌলি পুলিশ।”  

চলতি মাসের ২০ তারিখ এই টুইটের মাধ্যমে জানানো হয়েছে, “মামলাটি এক বছরেরও বেশি পুরনো যাতে শিশুটির সঙ্গে অমানবিক আচরণের অভিযোগে ওই সময় দুই পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়। সম্পূর্ণ তথ্য এবং পরিষ্কার তথ্য ছাড়া কিছু প্রচার করা থেকে বিরত থাকুন।” 

তথ্য ও প্রমানের সাপেক্ষ্যে প্রমানিত হয় চুরির অভিযোগে ধৃত নাবালক যুবককে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের মারধরের পুরনো ভিডিওকে বিভ্রান্তিকর দাবির সাথে যুক্ত করে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে। 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। চুরির অভিযোগে ধৃত নাবালককে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের মারধরের পুরনো ভিডিওকে বিভ্রান্তিকর দাবির সাথে ভাইরাল করা হচ্ছে।

Avatar

Title:চুরির অভিযোগে ধৃত নাবালককে মারধরের পুরনো ভিডিওকে ভুয়ো দাবির সাথে ভাইরাল

Fact Check By: Nasim A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published.