জগদীশ চন্দ্র বসুর ছবি ব্রিটেনের ৫০ পাউন্ড নোটে? জানুন সত্যতা

False Social

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একটি ছবি শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, যুক্তরাজ্যের বাজারে জগদীশ চন্দ্র বসুর ছবি যুক্ত ৫০ পাউন্ডের নোট আসতে চলেছে। পোস্টের ছবিতে দেখা যাচ্ছে বিখ্যাত ভারতীয় বিজ্ঞানি জগদীশ চন্দ্র বসুর ছবি যুক্ত একটি বাংলা প্রতিবেদন রয়েছে যার শিরোনামে লেখা হয়েছে, “গণভোটে ব্রিটেনের জনগণের রায় ব্রিটেনের ৫০ পাউন্ড নোটে থাকছে জগদীশ চন্দ্র বোসের ছবি।”  

পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “ইউ কে ব্রিটেনে 50 পাউন্ড মূদ্রার নোটে যুক্ত হচ্ছে বিশিষ্ট বিজ্ঞানী ও সনাতনী সম্প্রদায়ের অহংকার স্যার, জগদীশ চন্দ্র বসুর ছবি। ~স্যার জগদীশ চন্দ্র বসু একাধারে পদার্থবিদ্যা, উদ্ভিদবিদ্যা ও জীববিজ্ঞানী এবং প্রথম কল্পবিজ্ঞান রচয়িতা। অবিভক্ত ভারত তথা বর্তমান বাংলাদেশের মুন্সীগঞ্জ জেলার বিক্রমপুরে ১৮৩৮ সালের ৩০ নভেম্বর এই বিশ্যবরেণ্য সনাতনী প্রানপুরুষ জন্মগ্রহন করেন। জন্মসূত্রে বাঙালি হিন্দু এই বিশিষ্ট বিজ্ঞানী জয় শ্রীরাম।”

তথ্য যাচাই করে আমরা জানতে পারি পোস্টের মাধ্যমে করা দাবিটি পুরনো খবরের অংশ এবং  বিভ্রান্তিকর। প্রখ্যাত গনিতবিদ ও সংকেতলিপি সমাধানকারী অ্যালান টুরিং-এর ছবি যুক্ত ৫০ পাউন্ডের নোট যুক্তরাজ্যে চালু হওয়ার ঘটনাকে ভুয়ো দাবির সাথে শেয়ার করা হচ্ছে। 

ফেসবুক পোস্ট আর্কাইভ 

তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে প্রথমে আমরা গুগলে প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চ করি। ফলাফলে একাধিক মুখ্যধারার সংবাদমাধ্যম এবং এই এই সম্পর্কিত ঘটনার উল্লেখ পাই। বাংলাদেশী সংবাদপত্র ‘যুগান্তর’-এর ২০২০ সালের ২৬ জানুয়ারি তারিখের একটি প্রতিবেদন থেকে জানতে পারি, বিজ্ঞানী আচার্য জগদীশ চন্দ্র বসুর মুখের প্রতিচ্ছবি দেখা যাবে ব্রিটিশ পাউন্ডে। (এখানে বলে রাখা ভালো, জগদীশ চন্দ্র বসুর জন্ম বাংলাদেশে হয়েছিল যেই কারণে ওপার বাংলার এই সংবাদমাধ্যমটি তাকে বাংলাদেশি বিজ্ঞানি বলে দাবি করছে।) 

যুগান্তর প্রতিবেদন  আর্কাইভ 

এছাড়া একাধিক নিউজ পোর্টালের প্রতিবেদনেও এই খবর দেখতে পাওয়া যায়। এই খবরগুলি পড়তে ক্লিক করুন এখানে, এখানে এবং এখানে।  

২০১৮ ব্যাঙ্ক অফ ইংল্যান্ড ঘোষণা করে তারা বিজ্ঞানের সম্মানে কয়েকজন বিজ্ঞানির ছবি যুক্ত বিশেষ কারেন্সি চালু করবে। এই ঘোষণার পর ব্যাঙ্কের কাছে মোট ২ লক্ষ ২৭ হাজার ২৯৯টি (২২৭২৯৯) আবেদনপত্র আসে। 

ওই বছরের ২৬ নভেম্বরের মধ্যে মোট ১ লক্ষ ৭৪ হাজার ১১২টি মনোনয়ন পত্র জমা পড়েছিল ব্যাঙ্ক অফ ইংল্যান্ডের দফতরে। ব্যাঙ্ক কতৃপক্ষ একটি প্রাথমিক তালিকা প্রকাশ করে ১ লক্ষ ১৪ হাজার জনকে নির্বাচিত করে যেখানে ভারতীয় বিজ্ঞানি আচার্য জগদিশ চন্দ্র বোসেরও নাম পাওয়া যায়। 

নামের তালিকা 

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ‘টিবিসি নিউজ’-এর ৩ ডিসেম্বর, ২০১৯, তারিখের প্রতিবেদন অনুযায়ী,পরবর্তীতে ব্যাঙ্ক অফ ইংল্যান্ড মোট মনোনয়নের মধ্যে থেকে বেছে যোগ্য ৯৮৯ জনের একটি তালিকা প্রকাশ করে। এই তালিকাতেও জগদীশ চন্দ্র বোসের নাম দেখতে পাওয়া জয়। একই ভাবে কয়েকটি পদক্ষেপে বাছাই প্রক্রিয়া চলতে থাকে। প্রতিযোগীদের চূড়ান্ত ১২ জনের তালিকায় একমাত্র ভারতীয় বিজ্ঞানি শ্রীনিবাস রামানুজন-এর নামের উল্লেখ দেখা যায়। নিয়ম অনুযায়ী শুধুমাত্র একজন বিজ্ঞানির নাম ব্রিটিশ কারেন্সিতে ছাপানো হবে। 

২০১৯ সালের জুলাই মাসে ব্যাঙ্ক অফ ইংল্যান্ডের অ্যাডভাইসরি কমিটি ব্রিটিশ গনিতবিদ ও সংকেতলিপি সমাধানকারী ‘অ্যালান টুরিং’-এর নাম চূড়ান্তভাবে বেছে নেন। ৫০ পাউন্ডের এই নতুন নোটে এই বিজ্ঞানির ছবি থাকবে এবং ২০২১ সালের শেষের দিকে প্রচলিত হবে বলে ব্যাঙ্কের তরফে জানানো হয়েছে।   

প্রতিবেদন আর্কাইভ 

ব্যাঙ্ক অফ ইংল্যান্ডের ওয়েবসাইট থেকেও একই খবর জানতে পারি এবং প্রস্তাবিত ৫০ টাকার নোটের একটি ছবিও দেখতে পাই। 

সংবাদমাধ্যম ‘ইন্ডিয়া টাইমস’-এর ১৯ জুলাই, ২০১৯, তারিখের প্রতিবেদন থেকেও একই কথা জানা যায়। ‘বিবিসি নিউজ’-এর ২১ জুন, ২০২১, তারিখের প্রতিবেদন অনুযায়ী অ্যালান টুরিং-এর ছবি যুক্ত ৫০ পাউন্ডের নোট বাজারে প্রচলন শুরু হয়ে গিয়েছে। 

প্রতিবেদন আর্কাইভ 

এই নতুন উন্মোচনকে কেন্দ্র করে ব্যাঙ্ক অফ ইংল্যান্ডের অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে ২৫ মার্চ, ২০২১, তারিখে একটি ভিডিও আপলোড করা হয়। শিরনামে লেখা রয়েছে, “৫০ পাউন্ডের নতুন নোট প্রকাশ করা হল।” 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। প্রখ্যাত গনিতবিদ ও সংকেতলিপি সমাধানকারী অ্যালান টুরিং-এর ছবি যুক্ত ৫০ পাউন্ডের নোট যুক্তরাজ্যে চালু হওয়ার ঘটনাকে ভুয়ো দাবির সাথে শেয়ার করা হচ্ছে।

Avatar

Title:জগদীশ চন্দ্র বসুর ছবি ব্রিটেনের ৫০ পাউন্ড নোটে? জানুন সত্যতা

Fact Check By: Nasim A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published.