হযরত মুহাম্মদ বিরোধী মন্তব্য বিতর্ক নিয়ে কোনও মন্তব্য করেননি মঈন আলি

False International

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একটি টুইটের স্ক্রিনশট পোস্ট শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, ইসলাম ধর্মের নবী হযরত মহাম্মদ কেন্দ্রিক বিতর্ককে ঘিরে আইপিএল বয়কট করার কথা টুইটের মাধ্যমে জানালেন ইংল্যান্ডের ক্রিকেটার মঈন আলি। 

পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “বিশ্ব নবীকে কটুক্তি করায় ইংল্যান্ডের একজন ক্রিকেটারের এমন প্রতিবাদ | যার বাংলা হলো, যদি ভারত তার নিন্দামূলক বক্তব্যের জন্য ক্ষমা না চায়, আমি আর কখনও ভারতে ম্যাচ খেলতে যাব না, আমি আইপিএলও বয়কট করব। এবং আমি আমার সহকর্মী মুসলিম ভাইদের কাছে একই কাজ করার জন্য আবেদন করব, আমি ভালোবাসি মোহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে।”    

তথ্য যাচাই করে আমরা জানতে পারি পোস্টের দাবি ভুয়ো ও বিভ্রান্তিকর। প্যারোডি অ্যাকাউন্ট থেকে শেয়ার করা টুইটকে মঈন আলির বক্তব্য দাবি করে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে।  

ফেসবুক পোস্ট আর্কাইভ 

তথ্য যাচাই 

এই দাবির সত্যতা যাচায় করতে আমরা মঈন আলির টুইটার প্রোফাইলে ভাইরাল এই টুইটটি খুঁজে দেখার চেষ্টা করি। আমরা মঈন আলির ভেরিফাইড টুইটার খুঁজে পাইনা। 

ভাইরাল স্ক্রিনশটে উল্লেখিত টুইটার প্রোফাইল @Moeen_Ali18-এর নিউজফিডে খুব সহজেই  ভাইরাল এই টুইট খুঁজে পাওয়া যায়। এই টুইটার প্রোফাইল গতমাসেই খোলা হয়েছে। 

এই প্রোফাইলে স্পষ্ট লেখা হয়েছে, “এই প্রোফাইল অফিশিয়াল নয়, মঈন আলির কমেন্ট্রি আকাউন্ট।”

এরপর আমরা গুগলে প্রাসঙ্গিক কি ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে দি গার্ডিয়ান-এর ২০২০ সালে মঈন আলির এক সাক্ষাৎকারের প্রতিবেদন খুঁজে পাই। এই সাক্ষাৎকারে তৎকালীন এক বিতর্কিত প্রশ্নের উত্তর করার সময় তিনি জানিয়েছিলেন, “তিনি সোশ্যাল মিডিয়া থেকে বিরত হয়েছেন।

প্রতিবেদন 

তথ্যের ভিত্তিতে স্পষ্ট বলতে পারি, ভাইরাল টুইটটি মঈন আলি নামের প্যারোডি প্রোফাইল থেকে পোস্ট করা হয়েছে। মঈন আলির নিজস্ব কোনও টুইটার একাউন্ট নেই।  

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। প্যারোডি অ্যাকাউন্ট থেকে শেয়ার করা টুইটকে মঈন আলির বক্তব্য দাবি করে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে। 

Avatar

Title:হযরত মুহাম্মদ বিরোধী মন্তব্য বিতর্ক নিয়ে কোনও মন্তব্য করেননি মঈন আলি

Fact Check By: Rahul A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published.