না, প্যালেস্তাইনের সমর্থনে ইন্দোনেশিয়ায় এই প্রতিবাদ সভা করা হয়নি

International Missing Context

সম্প্রতি জেরুজালেমে আল-আকসা মসজিদ চত্বরে ইসরায়েলি পুলিশের সঙ্গে প্যালেস্তাইনিদের সংঘর্ষের জের ধরে ১১ দিন ধরে ইজরায়েল ও গাজা নিয়ন্ত্রণকারী হামাসের পাল্টাপাল্টি হামলা চলে। গাজা থেকে ইসরায়েলের দিকে রকেট ছোড়ার কথা জানিয়ে গত ১০ মার্চ রাত থেকে অধিকৃত এই উপত্যকায় প্যালেস্তাইনিদের স্থাপনায় বিমান হামলা চালায় ইজরায়েল।

সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবিকে এই ঘটনার সাথে যুক্ত করে শেয়ার করা হচ্ছে। দাবি, প্যালেস্তাইনের সমর্থনে ইন্দোনেশিয়ায় প্রতিবাদ সভা করা হচ্ছে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে একটি জলাশয়ের চারিদিকে প্রচুর লোক দাড়িয়ে রয়েছে। পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “আলহামদুলিল্লাহ মসজিদে আকসা ও প্যালেস্তাইনি ভাই বোনদের জন্য ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তায় বর্বর সন্ত্রাসী রাষ্ট্র ইসরাইল বিরোধী স্বরণকালের ঐতিহাসিক প্রতিবাদ সভা। হে আল্লাহ! প্রাণের আকসাকে হেফাজত করুন। আমীন।“

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি ভিত্তিহীন এবং বিভ্রান্তিকর। ২০১৬ সালের একটি বিক্ষোভের ছবিকে ইজরায়েল-প্যালেস্তাইন সংঘর্ষের সাথে যুক্ত করে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে। 

ফেসবুক আর্কাইভ

উল্লেখ্য, ইজরায়েলের হামলায় অন্তত ২৩২ জন প্যালেস্তাইনি নিহত হয়েছেন, যাদের মধ্যে অর্ধশতাধিক শিশু রয়েছে। অপর দিকে ইসরায়েলে হামাসের ছোড়া রকেটে ১৩ জন নিহত হয়েছেন। অবশেষে, ২১ মে ইজরায়েল প্রশাসন এবং হামাস দুই পক্ষই যুদ্ধবিরতিতে রাজি হয়েছে। 

তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে প্রথমে আমরা গুগলে রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। ফলাফলে, ‘ইন্দোনেশিয়া এক্সপাট’ নামে একটি ওয়েবসাইটে এই প্রতিবেদনটি দেখতে পাই। ২০১৭ সালের ৭ মার্চের এই প্রতিবেদন থেকে জানতে পারি, রাজধানী জাকার্তার মেয়র বসুকি চাহাজা পূর্ণমার, ‍‘আহোক” নামে সুপরিচিত, ধর্ম অবমাননার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল পথে নামে। ২০১৬ সালের আহোক কুরাণের একটি সুরাকে বিকৃত ভাবে ব্যবহার করে যাতে মুসলিমদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত লাগে। তার এই মন্তব্যের বিরুদ্ধে পর থেকেই হাজার হাজার মুসলিম ধর্মালম্বী মানুষ পথে নামে। 

প্রতিবেদন আর্কাইভ

এরপর কিওয়ার্ড সার্চ করে একটি ইন্দোনেশিয়ান সংবাদমাধ্যম থেকে ভাইরাল ছবিটি হল ২০১৬ সালের আকসি ২১২ নামে একটি বিক্ষোভ মিছিলের। জানতে পারি, আহোকের মন্তব্যের বিরুদ্ধে হাজার হাজার মানুষ জুম্মার দিন পথে নেমে নামাজ পড়ে। 

প্রতিবেদনআর্কাইভ

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল। ২০১৬ সালের চিলির একটি ছবিকে সম্প্রতির ইজরায়েল-প্যালেস্তাইন সংঘর্ষের সাথে যুক্ত করে ভুয়ো পোস্ট শেয়ার করা হচ্ছে।

Avatar

Title:

Fact Check By: Nasim A 

Result: Missing Context


Leave a Reply

Your email address will not be published.