অপ্রাসঙ্গিক তিনটি পুরনো ছবিকে ইসরায়েল-প্যালেস্তাইন সংঘর্ষের সাথে জুড়ে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল  

False International

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একটি ভিডিও শেয়ার করে সেগুলকে সম্প্রতির ইসরায়েল-প্যালস্তাইন সংঘর্ষে ঘরছাড়া পরিবারদের দৃশ্য বলে দাবি করা হচ্ছে। প্রথম ছবিতে দেখা যাচ্ছে এক মহিলা দুই কোলে দুজন বাচ্চাকে নিয়ে হাঁটছে, দ্বিতীয় ছবিতে এক মানুষ এক বাচ্চা শিশুকে কোলে নিয়ে কাঁদছে এবং সাথে হেটে চলেছে, তৃতীয় ছবিতে এক বালককে অনেকগুলো সশস্ত্র বাহিনী জবরদস্তি টেনে নিয়ে যাচ্ছে। 

পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে “এটা সত্যিই হৃদয়বিদারক 😭 প্যালস্তাইনের জন্য প্রার্থনা করুন—🇵🇸 কিন্তু এটাও মনে রাখবেন আল্লাহ তায়ালা বলেন- আশা হারাবেন না, দুঃখ করবেন না। তোমরা অবশ্যই বিজয়ী হবে যদি তোমরা সত্য বিশ্বাসী হও।” – [কুরআন 3:139] “ 

তথ্য যাচাই করে আমরা জানতে পারি পোস্টের দাবি ভুয়ো ও বিভ্রান্তিকর। আলাদা আলাদা ঘটনাযুক্ত পুরনো তিনটি ছবিকে ইসরায়েল-প্যালস্তাইন সংঘর্ষের সাথে জুড়ে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে। 

ফেসবুক পোস্ট আর্কাইভ 

উল্লেখ্য, চলতি মাসের ৭ তারিখ প্যালস্তাইন- ইসরায়েলের মধ্যে সংঘর্ষ । ইসরায়েলএর পক্ষ থেকে গাজাতে আগ্নেয়াস্ত্র ছোড়ায় এখন অবধি ৪০ জনেরও বেশি মারা গেছেন এবং ১৫ জনের বেশি ফিলিস্তানি শিশু মারা গেছে। দুই পক্ষের মধ্যে যুদ্ধ বিরতিরো ঘোষণা হয়। এই পরিপ্রেক্ষিতেই এই পোস্ট শেয়ার করা হয়েছে। 

তথ্য যাচাই 

এই দাবির সত্যতা যাচায় করতে আমরা ছবিগুলোকে গুগল রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। ফলাফলে, খুব সহজেই ছবি গুলির আসল উৎস পেয়ে যায়। 

১ম ছবিঃ 

এই ছবিটি Aforismi নামের ফেসবুক প্রোফাইলে ২০১৯ সালের ১৯ নভেম্বর তারিখে পোস্ট করা হয়েছে এবং ছবিতে দেখতে পাওয়া মহিলা কে সিরিয়ার বাসিন্দা বলে সম্বোধন করা হয়েছে। 

এখান থেকে স্পষ্ট হয়ে যায়, ভাইরাল ছবিটি পুরনো এবং সম্প্রতির ইসরায়েল- প্যালস্তাইন সংঘর্ষের সাথে সম্পর্কিত নয়। 

ছবিটির আসল উৎস খুঁজতে ব্যার্থ হয়েছে ফ্যাক্ট ক্রিসেণ্ডো। আসল তথ্য সংযুক্ত করে এই প্রতিবেদন আপডেট করা হবে।  

২য় ছবিঃ 

ছবিটি ২০১৭ সালের ৪ মার্চ তারিখে ইরাকে একটি যুদ্ধের সময় তোলা হয়েছিল। ছবিতে যে লোকটি কাঁদছে সে তার মেয়েকে নিয়ে জঙ্গি সংগঠন আই এস আই এস এর নিয়ন্ত্রণাধীন ইরাকের শহর মসুল থেকে ইরাকি বাহিনীর অধীনে থাকা এলাকায় পালিয়ে আসছিল। 

প্রতিবেদন আর্কাইভ 

এই একই ছবি একই বিবরন সহ রয়টার্সের গালারিতেও পাওয়া যায়। 

তৃতীয় ছবিঃ 

এই ছবিটি ২০১৭ সালের ৭ ডিসেম্বর তারিখের। প্যালস্তাইনের বাসিন্দা বন্দী ছেলেটির নাম ফাওজি আল জুনাইদি। তৎকালীন সময়ে ইসরায়েলি সেনাবাহিনীদের উপর পাথর ছুড়ার অভিযোগে তাকে চোখে কাপড় বেঁধে নির্মমভাবে টেনে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এই ছবি তৎকালীন সময়েও ভাইরাল হয়েছিল এবং ইসরায়েল সরকারের এই কথর ব্যাবহারের জন্য অনেক সমালচিত হয়েছিল। 

প্রতিবেদন আর্কাইভ 

এই ছবি কেন্দ্রিক আল জাজিরার প্রতিবেদন থেকেও একই তথ্য জানা যায়। 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিস্যান্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। পুরনো তিনটি ছবিকে ইসরায়েল-প্যালস্তাইন সংঘর্ষের সাথে জুড়ে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে । 

Avatar

Title:অপ্রাসঙ্গিক তিনটি পুরনো ছবিকে ইসরায়েল-প্যালেস্তাইন সংঘর্ষের সাথে জুড়ে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল

Fact Check By: Rahul A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published.