রাষ্ট্রপতি ভবনে আমিষ খাবার এবং অ্যালকোহল নিষিদ্ধ? জানুন সত্যতা

False Political

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, রাষ্ট্রপতি ভবনে আমিষ খাবার ও অ্যালকোহলে নিষেধাজ্ঞা জারি করলেন রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু। রাষ্ট্রপতির ছবি যুক্ত এই গ্রাফিক্সে লেখা রয়েছে “ দ্রৌপদী মুর্মুর চমৎকার সিদ্ধান্ত, আজ থেকে রাষ্ট্রপতি ভবনে কোনো আমিষ/ আমিষভোজ বা অন্য কোনো ধরনের পানীয় পান করা যাবে না। প্রতিদিন সকালে এবং স্বয়ং রাষ্ট্রপতি ব্রাহ্ম মুহুর্তে প্রদীপ জ্বালিয়ে ভগবানের প্রশংসা ও জগতের কল্যাণ কামনা করে আরতি করবেন। রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মিরজির রেস্তোরাঁ এখন হবে বিশুদ্ধ, সাত্ত্বিক এবং পেঁয়াজ-রসুন থেকে দূরে।“   

পোস্টের ক্যাপশনে লেখা হয়েছে “ ভারতের মহামান্য রাষ্ট্রপতি শ্রীমতি দ্রৌপদী মুর্মু মহোদয়া শ্রী শ্রী ঠাকুর অনুকূল চন্দ্রের দীক্ষায় দীক্ষিত। উনার সিদ্ধান্তক্রমে রাষ্ট্রপতি ভবনে এখন থেকে ভোজন এর মধ্যে নিরামিষ বাধ্যতামূলকভাবে থাকছে। কোন প্রকার আমিষ খাবার হবে না উনার স্থায়িত্বকালে রাষ্ট্রপতি ভবনে। শরীরকে সুস্থ ও সবল রাখতে, রুগ ও বিভিন্ন উপসর্গ থেকে সুস্থ থাকতে নিরামিষ আহারের উপকারিতা যথেষ্ট।“ 

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি ভুয়ো এবং বিভ্রান্তিকর। রাষ্ট্রপতি ভবনে আমিষ খাবার এবং অ্যালকোহল নিষিদ্ধের খবরটি সত্য নয়। 

ফেসবুক পোস্ট আর্কাইভ 

 তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে আমরা প্রথমে গুগলে কিওয়ার্ড সার্চ করে এই সংক্রান্ত খবর খুঁজে দেখার চেষ্টা করি। ফলে বিশ্বাসযোগ্য এমন কোন প্রতিবেদন আমরা খুঁজে পাইনা যেখানে ভাইরাল এই দাবির কথা বলা হয়েছে। রাষ্ট্রপতি ভবনের খাবার সংক্রান্ত এত বড় সিদ্ধান্তের ঘোষণার খবর মুখ্যধারার কোন প্রতিবেদনে না পেয়ে আমাদের সন্দেহ দৃঢ় হয়। 

ফ্যাক্ট ক্রিসেণ্ডো রাষ্ট্রপতি ভবনের মুখ্য সচিব মুকেশ কুমারের সাথে যোগাযোগ করে। তিনি আমাদের জানান, “প্রেসিডেন্ট দ্রৌপদী মুর্মু জি নিরামিষ খাবার খান। তার পারিবারিক রান্নাঘরে নিরামিষ খাবার তৈরি করা হয়, যাতে পেঁয়াজ এবং রসুন যোগ করা হয় না। আর রাষ্ট্রপতি ভবনে যদি কোনও অনুষ্ঠান হয়, তবে সেই সময়ে যে মেনু ঠিক করা হয়, সেই অনুযায়ী খাবার তৈরি করা হয়।”

তারপর ফ্যাক্ট ক্রিসেণ্ডো পিআইবির প্রধান মহাপরিচালক জয়দীপ ভাটনগরের সাথে যোগাযোগ করে। তিনি আমাদের জানিয়েছে, “ভাইরাল দাবিটি একদম ভুল। এমন কোনও আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়নি যাতে বলা হয়েছে যে রাষ্ট্রপতি ভবনে আমিষ খাবার নিষিদ্ধ করা হয়েছে।”

পিআইবি তথ্য যাচাইয়ের  টুইটার হ্যান্ডেল থেকে ভাইরাল দাবিটি খণ্ডন করে একটি টুইটও করা হয়েছে।

আর্কাইভ টুইট 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিস্যান্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। রাষ্ট্রপতি ভবনে আমিষ খাবার এবং অ্যালকোহল নিষিদ্ধের খবরটি সত্য নয়।  

Avatar

Title:রাষ্ট্রপতি ভবনে আমিষ খাবার এবং অ্যালকোহল নিষিদ্ধ? জানুন সত্যতা

Fact Check By: Nasim A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published.