ছত্তিশগড়ে হিন্দু মহাসভার সমাবেশে ব্যারিকেড ভাঙার ভিডিওকে মথুরার ঘটনা দাবি করে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল

False Social

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একটি ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, উত্তরপ্রদেশের মথুরায় কৃষ্ণ ভক্তরা পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে ফেলে। পোস্ট করা ৩০ সেকেন্ডের এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একটি HDFC ব্যাঙ্কের সামনে বিশাল একটি ভিড় জমায়েত করেছে এবং পুলিশ তাদের ব্যারিকেড দিয়ে আটকে রেখেছে। ভিড়ের তুলনায় পুলিশের সংখ্যা কম থাকায় তারা সামনে থাকা ব্যারিকেড ভেঙ্গে ফেলছে। প্রায় বেশিরভাগেরই হাতে গেরুয়া রঙের পতাকা রয়েছে। 

তথ্য যাচাই করে আমরা জানতে পারি পোস্টের মাধ্যমে করা দাবি ভুয়ো ও বিভ্রান্তিকর। ছত্তিশগড়ে হিন্দু মহাসভা দ্বারা আয়োজিত সমাবেশে ব্যারিকেড ভাঙার ভিডিওকে মথুরার ঘটনা দাবি করে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে। 

ফেসবুক পোস্ট 

উল্লেখ্য,১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর, উত্তরপ্রদেশের অযোধ্যা বাবরি মসজিদ ভেঙ্গে ফেলা হয় এবং এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দেশজুড়ে অশান্তির পরিবেশ সৃষ্টি হয়। সম্প্রতি কয়েকটি স্থানীয় হিন্দু সংগঠন জানায়, ২০২১ সালে ওই একই তারিখে অর্থাৎ ৬ ডিসেম্বর মথুরায় অযোধ্যার মত কিছু করা হবে। দাবি করা হয়, এই দিন মথুরার শাহী ইদগাহে বাল গোপালের (কৃষ্ণ) মূর্তি স্থাপন করা হবে। এই মন্তব্যের পর শহরে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনাপূর্ণ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়ে। অশান্তি এবং হিংসা এড়াতে শহরে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। 

তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে আমরা ভিডিওটিকে ভালো করে লক্ষ্য করি। ভিডিওর পুলিশ কর্মীর উর্দিতে থাকা ব্যাজকে জুম করে দেখে স্পষ্ট হয় এটি ছত্তিসগড় পুলিশের ব্যাজ। 

এর থেকে প্রায় স্পষ্ট হয়ে যায় ভাইরাল এই ভিডিওটি মথুরার নয়। 

ভিডিওর আসল উৎস খুঁজতে ভিডিওকে ইনভিড টুলের মাধ্যমে কি ফ্রেমে ভাগ করে গুগলে রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। ফলাফলে হিন্দি সংবাদমাধ্যম “ই টিভি ভারত”-এর একটি প্রতিবেদনে এর অনুসন্ধান পাওয়া যায়। ১২ অক্টোবর, ২০২১, তারিখের এই প্রতিবেদনে কয়েকটি ভিডিও দেওয়া রয়েছে। ভিডিওগুলি ভালো ভাবে যাচাই করে বোঝা যায় এগুলি ভাইরাল পোস্টের দাবির সাথে যুক্ত। জানা যায়, কাওয়ার্ধা কাণ্ডের প্রতিবাদে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের কর্মীরা ছত্তিশগড় রাজ্যের কোর্বা জেলায় একটি সমাবেশর আয়োজন করে। এই প্রতিবাদ সভার স্থলেই পুলিশের সাথে তাদের বচসা বাঁধে। এখানে বলে রাখা ভালো, ২ অক্টোবর ছত্তিশগড় রাজ্যের রাজধানী রায়পুর থেকে প্রায় ১২৬ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত কাওয়ার্ধা (কবিরধাম) জেলার সদর শহরের একটি রাস্তা থেকে ধর্মীয় পতাকা অপসারণকে কেন্দ্র করে দুটি সম্প্রদায়ের মানুষদের মধ্যে সংঘর্ষ বিবাদ শুরু হয়। 

প্রতিবেদন আর্কাইভ 

এই সুত্র ধরে প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চ করি। ফলাফলে মথুরা পুলিশের একটি টুইট খুঁজে পাই। ভাইরাল পোস্টের এই একই ভিডিওকে রিটুইট করে পুলিশের অফিসিয়াল টুইটার আইডি থেকে জানানো হয়, “এই ভিডিওটি মথুরা জেলার সাথে সম্পর্কিত নয়, যে ব্যক্তি এই বিভ্রান্তিকর ভিডিও পোস্ট করেছে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। দয়া করে গুজব ছড়াবেন না। শান্তি বজায় রাখতে সাহায্য করুন।” 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। ছত্তিশগড়ে হিন্দু মহাসভা দ্বারা আয়োজিত সমাবেশে ব্যারিকেড ভাঙার ভিডিওকে মথুরার ঘটনা দাবি করে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে।

Avatar

Title:ছত্তিশগড়ে হিন্দু মহাসভার সমাবেশে ব্যারিকেড ভাঙার ভিডিওকে মথুরার ঘটনা দাবি করে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল

Fact Check By: Nasim A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published.