২০১৯ সালের রাম নবমী শোভাযাত্রার ভিডিওকে সম্পাদিত করে ভুয়ো দাবির সাথে ভাইরাল করা হচ্ছে

Altered Social

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একটি ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, মধ্যপ্রদেশের উজ্জয়িনীতে হিন্দুরা একটি মসজিদের সামনে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে স্লোগান দিচ্ছে। ৩০ সেকেন্ডের এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে একটি মসজিদের সামনের রাস্তায় গেরুয়া বস্ত্র পরিহিত অনেক লোক ভিড় জমিয়ে আছে এবং “নিম কা পাত্তা কড়বা হে, পাকিস্তান ভড়বা হে” সমবেত স্লোগান জাতীয় শোনা যাচ্ছে।  

পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “মধ্যপ্রদেশের উজ্জয়িনী তে যে মসজিদের সামনে তালিবানের আফগানিস্তান দখলকে কেন্দ্র করে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করা হয় এবং পাকিস্তান জিন্দাবাদ স্লোগান দেওয়া হয় ঠিক সেই জায়গাতেই মধ্যপ্রদেশের হিন্দু ভাইরা গিয়ে স্লোগান দিলো ‘নিম কা পাত্তা কড়বা হে, পাকিস্তান ভড়বা হে’। এই দেশের মাটিতে নাকি আবার ওদের অধিকার আছে!!! 🚩🚩🚩🚩”

তথ্য যাচাই করে আমরা জানতে পারি পোস্টের মাধ্যমে করা দাবি ভুয়ো ও বিভ্রান্তিকর। ২০১৯ সালে কর্ণাটকের গুলবার্গার কাদরি চৌকে রাম নবমী উদযাপন করার ভিডিওকে বিভ্রান্তিকর দাবির সাথে ভাইরাল করা হচ্ছে। 

ফেসবুক পোস্ট 

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় উজ্জয়নের একটি মসজিদের সামনে মহরম উদযাপনের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। অভিযোগ ওঠে ভিডিওতে কয়েকজন লোক ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ’ স্লোগান দিচ্ছে। এই ভিডিও তুমুল ভাবে ভাইরাল হওয়ার পর দেশদ্রোহের অভিযোগে ১৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়। ধৃত সবার বয়স ২০ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে বলে জানানো হয়েছে পুলিশের তরফে। দাবি করা হচ্ছে, এই একই মসজিদের সামনে হিন্দুরা তালিবানের বিরুদ্ধে স্লোগান তোলে। 

তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে ভিডিওটিকে প্রথমে ‘ইনভিড-উই-ভেরিফাই’ টুলের মাধ্যমে কি ফ্রেমে ভেঙ্গে গুগলে রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। ‘বিশ আর কে’ নামক এক ইউটিউব চ্যানেল হুবহু এই একই ভিডিও দেখতে পাওয়া যায়। ভিডিওটি ২০১৯ সালের ১৩ এপ্রিল তারিখে আপলোড করা হয়েছে যার শিরোনামে লেখা রয়েছে “কর্ণাটকের কালাবুর্গি এর কাদরি চৌক এ ২০১৯ রাম নবমী”। এখানে বলে রাখা ভালো কালাবুর্গি এবং গুলবার্গা একই জায়গা। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, গেরুয়া বস্ত্র পরিহিত জনগনের একটি বিশাল সমাগম। কানের তালা ফাটানো ডিজে গানের তালে নাচতে ব্যস্ত সবাই। ভিডিওতে কোথাও ‘পাকিস্তান’ বিরোধী স্লোগান বা অন্য কোনও স্লোগান শোনা যায়নি।  

এরপর এই একই ভিডিও ‘অভিষেক দাঙ্গে; নামক ইউটিউব চ্যানেল থেলে ২০১৯ সালের ১৩ এপ্রিল আপলোড করা হয়েছে। এই ভিডিওর শীর্ষকে লেখা রয়েছে, “গুলবার্গা রাম নবমী ১৩.০৪.২০১৯।” 

গুলবার্গা রাম নবমী উদযাপনের আরেকটি ভিডিও নিচে দেওয়া হল। এই ভিডিওটি ৫ মিনিট ৪২ সেকেন্ডের লম্বা। স্পষ্টভাবে বোঝা যাচ্ছে এই ভিডিওকে কেটেই ছোট অংশকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল করা হচ্ছে। এই ভিডিওতে বিভিন্ন রকম বাদ্যযন্ত্রের শব্দ, ডিজে গান এবং ভিড়কে নিয়ন্ত্রনে রাখতে মাইক থেকে ঘোষণার আওয়াজ শোনা যাচ্ছে। সম্পূর্ণ ভিডিওর কোথাও কোনও স্লোগান নেই।  

নীচে গুলাবার্গা এর কাদরি চৌক মসজিদ এবং ফেসবুক ভিডিওর স্ক্রিনশট এর একটি তুলনা হল।  

গুগল ম্যাপসে কাদরি চৌকের এই মসজিদটি খুঁজে পাই। এই মসজিদের নাম ‘এস এইচ কিউ (SHQ) বরগাহ-এ-কাদরি চমন’।

download - 2021-09-03T170306.857.png

এছাড়া গুগলে ম্যাপস-এর গ্যালারিতে এই মসজিদের ছবি দেখতে পাই যা ভাইরাল ভিডিওর মসজিদের সাথে হুবহু মিলে যায়। 

download - 2021-09-03T170729.713.png

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন।  কর্ণাটকের গুলবার্গার কাদরি চৌকে ২০১৯ সালের রাম নবমী উদযাপন করার ভিডিওকে বিভ্রান্তিকর দাবির সাথে ভাইরাল করা হচ্ছে। 

Avatar

Title:২০১৯ সালের রাম নবমী শোভাযাত্রার ভিডিওকে সম্পাদিত করে ভুয়ো দাবির সাথে ভাইরাল করা হচ্ছে

Fact Check By: Nasim A 

Result: Altered


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *