২০১৯ সালের ধর্নার ছবিকে সম্প্রতির দাবি করে ভুয়ো খবর ছড়ানো হচ্ছে

Missing Context Political

বাংলার বিধানসভা নির্বাচনের পর থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো খবরের সুনামি নেমেছে তা নিয়ে আমরা সকলেই অবগত। এর আগে বেশিরভাগ দাবি বর্তমান শাসকদল তৃণমূলের বিরুদ্ধেই করা হয়েছে। এবারের নিশানা পশ্চিমবঙ্গের বিরোধী দল বিজেপি। সম্প্রতি একটি পুরনো ছবি শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, মুখে মাস্ক না পরেই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন ধর্নায় বসেছেন। ছবিতে দেখা যাচ্ছে মাঝখেন হর্ষবর্ধন সহ আরও কয়েকজন বিজেপি নেতা ঠোঁটে আঙুল দিয়ে “বাংলাকে বাঁচান, গণতন্ত্র বাঁচান” লেখা প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে বসে রয়েছেন। 

পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “মাঝখানে বসে আছে এই ভদ্রলোকটিকে চেনেন? উনি হচ্ছে আমাদের দেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী। পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনোত্তর পাঁচ বিজেপি সমর্থকের মৃত্যুর প্রতিবাদে উনি ধর্নায় বসেছেন, মাস্ক না পরেই (কোন মৃত্যুই কাম্য নয়)। কিন্তু প্রতিদিন দেশে শুধু অক্সিজেন আর ওষুধের অভাবে হাজার হাজার মানুষ মারা যাচ্ছে, তা নিয়ে উনার কোন উচ্চবাচ্য নেই,ধর্না তো দূরের কথা। এমন ধামাধরা, নির্লজ্জ স্বাস্থ্যমন্ত্রী আগে কখনও দেখিনি।“

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি ভিত্তিহীন এবং ভুয়ো। ২০১৯ সালে মমতার বিরোধিতায় বিজেপির একটি ধর্নার ছবিকে সম্প্রতির ঘটনা দাবি করে বিভ্রান্তিকর পোস্ট শেয়ার করা হচ্ছে। 

Health Minister Claim.png
ফেসবুক আর্কাইভ
Health Minister Claim 2.png
ফেসবুকআর্কাইভ

উল্লেখ্য, ৫ মে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃতীয়বারের জন্য বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন। অন্যদিকে, রাজ্যে বিজেপি কর্মীদের মারধোর ও খুনের অভিযোগ এনে ধর্নায় বসে বঙ্গবিজেপি। শুধু বাংলা নয়, মহারাষ্ট্র, রাজস্থান সহ গোটা দেশে বিজেপি ধর্নায় বসে। হেস্টিংসে দলীয় কার্যালয়ের এই অবস্থান বিক্ষোভে হাজির হন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা, রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ সহ রাজ্যের প্রথমসারির গেরুয়া শিবিরের নেতারা।

তথ্য যাচাই

ছবিটি পর্যবেক্ষণ করে দেখতে পাই বাঁদিকে ওপরে সংবাদমাধ্যম ‘এইচ ডবলু’র লোগো রয়েছে। গুগলে রিভার্স ইমেজ সার্চ করে ‘এইচ ডবলু’র একটি প্রতিবেদনে ছবিটিকে দেখতে পাই। ২০১৯ সালের ১৫ মে তারিখের এই খবর থেকে জানতে পারি, তৎকালীন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহর কলকাতার রোড শোতে হিংসার প্রতিবাদে মমতার বিরোধিতায় দিল্লীর জন্তর মন্তরে হর্ষবর্ধন সহ ধর্নায় বসে বিজেপি নেতৃত্ব। স্বাস্থ্যমন্ত্রী ছাড়া কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বিজয় গোয়েল এবং জিতেন্দ্র সিংহ উপস্থিত ছিলেন এই বিক্ষোভ কর্মসূচীতে।

BJP protest.png
প্রতিবেদনআর্কাইভ

সংবাদসংস্থা ‘এএনআই’র ২০১৯ সালের ১৫ মে-এর একটি টুইটে বিজেপির এই ধর্নার আরও বেশ কয়েকটি ছবি দেখতে পাই। সেখানে হর্ষবর্ধনকে একই পোশাকে হাতে প্ল্যাকার্ড নিয়ে দেখতে পাওয়া যায়। 

অন্যদিকে, সংবাদমাধ্যম ‘নিউজ ১৮ বাংলা’র ফেসবুক পেজে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শপথ পাঠের দিনে কলকাতার হেস্টিংসে বিজপির বিক্ষোভ কর্মসূচীর একটি ভিডিও দেখতে পাই। এই ভিডিওতে দেখতে পাওয়া যায় দিলীপ ঘোষ এবং জেপি নাড্ডা এই কর্মসূচিতে উপস্থিত রয়েছেন। তাদের দুজনের মুখেই মাস্ক রয়েছে। এই সভায় হর্ষবর্ধন উপস্থিত ছিলেন না।


নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল। ২০১৯ সালে মমতার বিরোধিতায় বিজেপির একটি ধর্নার ছবিকে সম্প্রতির ঘটনা দাবি করে বিভ্রান্তিকর পোস্ট শেয়ার করা হচ্ছে।

Avatar

Title:২০১৯ সালের ধর্নার ছবিকে সম্প্রতির দাবি করে ভুয়ো খবর ছড়ানো হচ্ছে

Fact Check By: Nasim A 

Result: Missing Context


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *