বহরমপুরে ছাত্রী খুনের ঘটনায় লাভ জিহাদ বা কোনও সাম্প্রদায়িক দিক নেই: মুর্শিদাবাদ পুলিশ সুপার

Communal False

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একটি ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, প্রেম প্রস্তাব স্বীকার না করায় হিন্দু মেয়েকে খুন করলো মুর্শিদাবাদের মুসলিম যুবক। সাথে এটিকে লাভ জিহাদের ঘটনা বলে দাবি করা হচ্ছে। পোস্টের ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে একজন যুবতি রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়ে আছে এবং তার পাশেই একজন যুবক মেয়েটিকে নৃশংস ভাবে লাথি ভাবে মারছে।

পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “তাহলে মুর্শিদাবাদ কি, বাংলাদেশ ও পাকিস্তান হয়েগেলো মেয়েটার বাড়ি মালদায় এখানে কোন ছেলের সাথে প্রেম করতো ঈদের দিন হিন্দু মেয়েটি রাজি হয়নি তাই তার আজ এই পরিণতি নিজের প্রাণ দিতে হলো। সমস্ত হিন্দু মেয়েদের উদ্দেশ্যে লাভ জিহাদ হইতে সাবধান🙏 ঘুমাও হিন্দু রা।”    

তথ্য যাচাই করে আমরা জানতে পারি পোস্টের দাবি ভুয়ো ও বিভ্রান্তিকর। মুর্শিদাবাদের বহরমপুরে ছাত্রী খুনের ঘটনার কোনও সাম্প্রদায়িক দিক নেই, জানিয়েছে পুলিশ। 

ফেসবুক পোস্ট 

*ভিডিওতে কিছু সংবেদনশীল দৃশ্য রয়েছে যা আপনাকে প্রভাবিক করতে পারে 

তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে আমরা ইউটিউবে প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চ করি। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের ইউটিউব চ্যানেলে এই ভিডিও কেন্দ্রিক অনেকগুলি নিউজ রিপোর্ট খুঁজে পাওয়া যায়। 

সংবাদমাধ্যম ‘এবিপি আনন্দ’-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, ঘটনাটি মুর্শিদাবাদ জেলার গোরাবাজারের। সুশান্ত চৌধুরী নামে এক যুবক বহরমপুর গার্লস কলেজের পদার্থবিদ্যার তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী সুতাপা চৌধুরীকে নির্মমভাবে হত্যা করে। যুবক এবং যুবতী, দুজনেই মালতদা জেলার বাসিন্দা। সুতমা বহরমপুরের একটি মেসে থেকে পড়াশুনা করত। অভিযুক্ত যুবকের বাড়ি বাড়ি মালদা জেলার পুখুরিয়া থানার পিরগঞ্জ গ্রামে। প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, প্রেম সম্পর্কে চিড় ধরার জেরেই খুন করা হয়েছে। 

ভাইরাল এই ভিডিওর দীর্ঘ সংস্করণে হত্যা করার সময় যুবক প্রতক্ষ্যদর্শিদে বলেন, তার সাথে প্রেম সম্পর্কে থাকাকালীন মেয়েটি আরও পাঁচজন ছেলের সাথে প্রেম সম্পর্কে আবদ্ধ ছিল।  

ভাইরাল দাবির সত্যতা যাচাই করতে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো মুর্শিদাবাদের এসপি কে সাবরি রাজ কুমারের সাথে যোগাযোগ করে। তিনি আমাদের নিশ্চিত করে বলেন, “এই ঘটনার সাথে লাভ জিহাদের সাথে কোন সম্পর্ক নেই। অভিযুক্ত ও ভুক্তভোগী দুজনেই হিন্দু।”  

এরপর বহরমপুরের আই সি রাজা সরকারের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি আমাদের জানান, “এই ঘটনার কোনও সাম্প্রদায়িক দিক নেই। ভাইরাল দাবিটি একেবারেই মিথ্যে। ছেলে এবং মেয়েটি দুজনেই হিন্দু।”  

তথ্য এবং প্রমানের ভিত্তিতে প্রমাণিত হয় মুর্শিদাবাদের খুনের ঘটনায় লাভ জিহাদ বা অন্য কোনও সাম্প্রদায়িক দিকে নেই।    

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে  এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। মুর্শিদাবাদের বহরমপুরে ছাত্রী খুনের ঘটনার কোনও সাম্প্রদায়িক দিক নেই, জানিয়েছে পুলিশ।

Avatar

Title:বহরমপুরে ছাত্রী খুনের ঘটনায় লাভ জিহাদ বা কোনও সাম্প্রদায়িক দিক নেই: মুর্শিদাবাদ পুলিশ সুপার

Fact Check By: Rahul A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published.