ইউক্রেনে আটক থাকার মিথ্যা দাবিতে বৈশালী যাদবকে গ্রেফতার করল পুলিশ? জানুন সত্যতা 

False Political

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি গ্রাফিক্স শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, বৈশালী যাদবকে উত্তরপ্রদেশ থেকে গ্রেফতার করল পুলিশ। রুশ ইউক্রেন যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর অনেক ভারতীয় শিক্ষার্থীরা ওই দেশে আটকা পড়ে যায়। এদের মধ্যে বৈশালী যাদব নামে একজন ছাত্রীর একটি ভিডিও ভাইরাল হয়ে যেখানে তিনি বলেন, আমরা ভয়াভহ পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছে। সরকার আমাদের নিয়ে যাবে তার অপেক্ষা করছি। আমরা ফ্লাইট বুক করেছিলাম কিন্তু তা বাতিল হয়ে যাওয়ার কারণে এখানেই আটকা পড়ে যাই। 

পোস্টে দাবি করা হচ্ছে, এই বৈশালী যাদব মিথ্যা বলছে। তিনি ভারতেই আছেন এবং পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছে। 

গ্রাফিক্সে ভাইরাল ভিডিওর বৈশালী যাদবের ছবি রয়েছে এবং লেখা রয়েছে, “নোংরা রাজনীতি! ভারত বিরোধিতা বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দোলগুলোর। মেয়েটির পরিচয়ঃ নামঃ বৈশালী যাদব, পিতাঃ মহেন্দ্র যাদব, সমাজবাদী পার্টির নেতা, হরদোই উত্তরপ্রদেশ। মোদী সরকারের বদনামে করবার জন্য নিজেকে ডাক্তারি ছাত্রী পরিচয় দিয়ে ভিডিও আপলোড করছিল। উত্তর প্রদেশ পুলিশ গ্রেফতার করার পর সামনে এল আসল তথ্য।”

ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো তথ্য যাচাই করে দেখতে পেয়েছে এই দাবি ভুয়ো এবং ভিত্তিহীন। বৈশালী যাদবকে গ্রেফতার করার খবরটি ভুয়ো, জানিয়েছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। 

ফেসবুক পোস্টআর্কাইভ

তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে প্রথমে প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চ দিয়ে অনুসন্ধান শুরু করে। সংবাদমাধ্যম ‘অমর উজালা’, ‘নিউজ ১৮’ এবং ‘আজ তক’-এর ২০২১ সালের ডিসেম্বর মাসে প্রকাশিত কিছু প্রতিবেদনে এই বিষয়ে কিছু তথ্য পাওয়া যায়। এই প্রতিবেদন অনুযায়ী, উত্তরপ্রদেশের হরদোই জেলার বাসিন্দা বৈশালী যাদব গত বছর পঞ্চায়েত ভোটের সময়ে ইউক্রেন থেকে ভারতে আসেন। তিনি গ্রাম প্রধান পদের জন্য সমাজবাদী পার্টির হয়ে ভোটে দাঁড়ান। এই নির্বাচনে বৈশালী জয়লাভ করেন এবং গ্রাম প্রধান হন। এরপর তার ডাক্তারি পড়াশুনা শেষ করতে তিনি আবার ইউক্রেন ফিরে যান এবং সেখান থেকে গ্রাম প্রধানের দায়িত্ব পালন করেন। বৈশালী হলেন হরদোই জেলার সান্দি ব্লকের তাইরাপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান। 

তার বাবা মহেন্দ্র যাদব সমাজবাদী পার্টির প্রাক্তন ব্লক চিফ এবং বর্তমান নেতা। হরদোই জেলার সিডিও আকাঙ্ক্ষা রাণা জানিয়েছেন, বৈশালী কীভাবে ইউক্রেন থেকে প্রধানের দায়িত্ব পালন করত তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 

ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো হরদোই থানার এসপি রাজেশ দ্বিবেদীর সাথে যোগাযোগ করে। তিনি এই দাবি নাকচ করে বলেন, উত্তরপ্রদেশ পুলিশ বৈশালীকে গ্রেফতার করেনি এবং তিনি বর্তমানে ভারতে নেই। 

আমরা টুইটারে আরও একটি ভিডিও খুঁজে পাই যেখানে রাজেশ দ্বিবেদী বৈশালীকে নিয়ে ছড়ানো ভাইরাল দাবিকে অসত্য বলে স্পষ্ট করেন। রালা পাল নামে একজন সাংবাদিক এই ভিডিওটি টুইট করে ক্যাপশনে লেখেন, “যে মেয়েটি সাহায্য চেয়েছিল সে বর্তমানে রোমানিয়াতে আছে। শুনুন এসপি কী বলছেন। তার সাহায্যের দরকারে।” এই ভিডিওর দীর্ঘ সংস্করণটি দেখুন এখানে। 

এছাড়া, সংবাদমাধ্যম দৈনিক ভাস্করের মাধ্যমে বৈশালী যাদব এই দাবিটিকে ভুল বলে জানান। তিনি বলেন তিনি ইউক্রেনে ছিলেন, বর্তমানে রোমানিয়াতে আছেন ভারতে নয়। 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। বৈশালী যাদবকে গ্রেফতার করার খবরটি ভুয়ো, জানিয়েছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ।

Avatar

Title:ইউক্রেনে আটক থাকার মিথ্যা দাবিতে বৈশালী যাদবকে গ্রেফতার করল পুলিশ? জানুন সত্যতা

Fact Check By: Rahul A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published.