না, রাতের অন্ধকারে লুকিয়ে মসজিদে যাননি মমতা, এই দাবি ভুয়ো

False Politics

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একই ভিডিও শেয়ার করে ভুয়ো দাবি করা হচ্ছে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি রাতের অন্ধকারে লুকিয়ে মসজিদে গিয়েছিলেন। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে মমতা ব্যানার্জি মুখে মাস্ক পরে হাত জোর করে দাড়িয়ে রয়েছেন এবং তার চারিদিকে অনেকগুলি লোক মুখ্যমন্ত্রীকে ঘিরে রেখেছেন। পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “আজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নন্দীগ্রাম এসে রাতে অন্ধকারে মুসলিম দের সাথে নামাজ পড়ছেন আর দিনের বেলা হিন্দু ভাইদের ঠকিয়ে যাচ্ছেন। এটা অতি লজ্জাজনক বিষয় যে একজন হিন্দু ব্রাহ্মণ পরিবারের মেয়ে হয়ে মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়ছেন আর আমাদের হিন্দুদের মন্দিরে জুতো পরে প্রবেশ করছেন … শুধু মাত্র ভোট ব্যাংক হিসেবে ব্যবহার করছেন আমাদের।. হিন্দুরা সবাই সাবধান নাহলে এরা নন্দীগ্রাম কে বাংলাদেশ বানিয়ে দেবে। ছিঃ ছিঃ ছিঃ মমতা…”। 

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি ভুয়ো এবং বিভ্রান্তিকর। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নন্দিগ্রামের জন্য মনোনয়ন জমা দেওয়ার আগে প্রকাশ্য দিবালোকে জনসমক্ষে মন্দিরে এবং দরগায় গিয়েছিলেন, রাতের অন্ধকারে লুকিয়ে নয়। 

ফেসবুক আর্কাইভ
https://twitter.com/DrSantoshvyas1/status/1372960111761649667

আর্কাইভ

উল্লেখ্য, বাংলা বিধানসভা ভোট নিয়ে উত্তাল রাজনৈতিক মহল। মোট আট দফার মধ্যে পাঁচ দফার ভোট শেষ হয়েছে ১৭ এপ্রিল। চতুর্থ দফা চলাকালীন কোচবিহারের শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে প্রাণ হারিয়েছেন চারজন। এর আগে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো ওই ঘটনাকে নিয়ে ছড়ানো ভুয়ো খবরের তথ্য যাচাই করেছে। 

তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে প্রথমে আমরা গুগলে কিছু প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চ করি। ফলাফলে সংবাদমাধ্যম “এবিপি নিউজ”র একটি প্রতিবেদন এই বিষয়ে একটি খবর দেখতে পাই। ২০২১ সালের ৯ মার্চ প্রকাশিত এই প্রতিবেদন অনুযায়ী, মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি নন্দিগ্রাম বিধানসভার প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দেওয়ার আগে মন্দিরে এবং দরগায় প্রার্থনা করতে যান। সেখানে একটি দোকান থেকে তিনি নিজের হাতে সমর্থকদের চা বিলি করেন।  

প্রতিবেদন আর্কাইভ

এরপর সংবাদমাধ্যম “টাইমস নাও”র ইউটিউব চ্যানেলে এই ঘটনার একটি ভিডিও দেখতে পাই। ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করে ভিডিওতে নীল চেক জামা পরা একজন লোককে দেখতে পাই যাকে ভাইরাল পোস্টের ভিডিওতেও দেখা যায়। 

নিচে দুটি ভিডিওতে দেখতে পাওয়া একই লোকের ছবি চিহ্নিত্ব করা হল।

এছাড়া মমতা ব্যানার্জির অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে তার দরগায় যাওয়ার ঘটনাটি লাইভ করা হয়েছিল। এর থেকে স্পষ্ট প্রমাণিত হয় যে মুখ্যমন্ত্রী লুকিয়ে মসজিদে যাননি, জনসমক্ষেই গিয়েছিলেন। 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নন্দীগ্রামের জন্য মনোনয়ন জমা দেওয়ার আগে প্রকাশ্য দিবালোকে জনসমক্ষে মন্দিরে এবং দরগায় গিয়েছিলেন, রাতের অন্ধকারে লুকিয়ে নয়।

Avatar

Title:না, রাতের অন্ধকারে লুকিয়ে মসজিদে যাননি মমতা, এই দাবি ভুয়ো

Fact Check By: Rahul A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published.