২০১৯ সালের CAA-বিরোধী বিক্ষোভের ভিডিওতে সাম্পদায়িক রং চড়িয়ে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল 

Communal False

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, মুর্শিদাবাদের নওপাড়া মহিষাসুর রেল স্টেশন ভাঙচুর চালাল মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকেরা। পোস্টে ১ মিনিট ৪৮ সেকেন্ডের একটি ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে যেখানে যেখানে যাচ্ছে তরুন-যুবকের একটি দল একটি রেল স্টেশনে ভাঙচুর করছে। দাবি করা হচ্ছে আযানের সময় ট্রেনের শব্দ বেশি হওয়ায় মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকেরা ট্রেন স্টেশনের সম্পত্তি নষ্ট করছে। 

পোস্টের ক্যাপসনে লেখা রয়েছে, “রেল স্টেশনে শান্তি‌র দূতদের ভাংচুর, তেনাদের নামাজের সময়ে ট্রেনের আওয়াজ খুব অসুবিধা করে…. আসলে কথাটা সত‍্যিই…..”সরকার যার‌ই হোক, সিস্টেম তো ওদের হাতেই”___ এটা পশ্চিমবঙ্গের মুরশিদাবাদের নওপাড়া মহিষাসুর স্টেশন।।”

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি ভুল এবং বিভ্রান্তিকর। ২০১৯ সালের CAA-বিরোধী বিক্ষোভের ভিডিওকে ভুয়ো সাম্প্রদায়িক দাবির সাথে শেয়ার করা হচ্ছে।

ফেসবুক পোস্ট

তথ্য যাচাই 

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে ভিডিওটিকে কয়েকটি কি-ফ্রেমে ভাগ করে রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। ফলাফলে কোনও প্রাসঙ্গিক তথ্য পাওয়া যায় না। এরপর ভিডিওটি ফ্রেম-বাই-ফ্রেম ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করে দেখতে পাই স্টেশনের নামের যায়গায় “NaoPara Mahisashur” লেখা রয়েছে। এরপর এই সূত্র ধরে প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চ করে ২০১৯ সালের শেয়ার করা বেশ কয়েকটি ভিডিও দেখতে পাই যার সাথে ভাইরাল এই ভিডিওর মিল পাওয়া যায়। 

এই ভিডিওতে স্টেশনের নাম দেখা যাচ্ছে যেখানে বাংলা, হিন্দি এবং ইংরেজি ভাষায় লেখা রয়েছে “নওপাড়া মহিষাসুর”। এই একই নাম আমরা ভাইরাল ভিডিওতে দেখতে পাই। নিচে এই দুইয়ের একটি তুলনামূলক ছবি দেওয়া হল। 

প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চ করে জানতে পারি, ২০১৯ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল আনার পর মুর্শিদাবাদ জেলার বিভিন্ন অংশে বিক্ষোভ শুরু হয়। সংবাদপত্র বর্তমান-এর একটি প্রতিবেদন থেকে জানতে পারি, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের তীব্রতা জঙ্গিপুরে সবেচেয়ে বেশি ছিল। এদিন নিমতিতা স্টেশন, পোড়াডাঙা স্টেশন এবং নওপাড়া মহিষাসুর স্টেশনে প্রথমে বিক্ষোভকারীদের জমায়েত শুরু হয়ে এবং তারপর তারা ভাঙচুর চালায়। 

এরপর এই বিষয়ে স্পষ্টতা পেতে আমরা জিয়াগঞ্জ থানার ওসি-এর সাথে যোগাযোগ করি। তিনি আমাদের বলেন, “ওই এলাকা আমাদের থানার আওতায় আসে না তবে সম্প্রতি মুর্শিদাবাদের কোনও স্টেশনেই এজাতীয় কোনও ঘটনা ঘটেনি তা আমি বলতে পারি।”

নওপাড়া মহিষাসুর সাগরদিঘি থানার অন্তর্গত এবং সাগরদিঘি জঙ্গিপুর মহকুমার অংশ। আমরা জঙ্গিপুর জেলা পুলিশের এসডিপি বিদ্যুৎ তরফদার-সাথে যোগাযোগ করি এবং তিনি জানান, “নওপাড়া মহিষাসুর রেল স্টেশনে সম্প্রতি কোনও হিংসা বা সন্ত্রা্সের কোনও ঘটনা ঘটেনি। এটি একাবেরি ফেক নিউজ।”

উপরোক্ত তথ্য এবং প্রমাণের সাপেক্ষে স্পষ্ট হয়ে যায় এই ভিডিওটি সম্প্রতির নয়। ২০১৯ সালের নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বিরোধী বিক্ষোভের ভিডিওতে ধর্মীয় রং চড়িয়ে ভুয়ো দাবির সাথে ভাইরাল করা হচ্ছে। 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। ২০১৯ সালের CAA-বিরোধী বিক্ষোভের ভিডিওকে ভুয়ো সাম্প্রদায়িক দাবির সাথে শেয়ার করা হচ্ছে।

Avatar

Title:২০১৯ সালের CAA-বিরোধী বিক্ষোভের ভিডিওতে সাম্পদায়িক রং চড়িয়ে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল

Fact Check By: Rahul A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published.