২০১৩ সালে মুসলিম ব্যক্তির গনেশ পূজা পালনের ভিডিওকে সম্প্রতির বলে ভুয়ো দাবি করা হচ্ছে

Missing Context Social

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একটি ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, এবছর গুজরাটে ধূমধাম ভাবে গণেশ পূজা পালন করলো মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকেরা। ১ মিনিট ১৭ সেকেন্ডের এই ভিডিওর প্রথমেই সংবাদ উপস্থাপককে হিন্দি ভাষায় বলছনে, আহমেদাবাদ শহরের মুসলমানরা গণেশ পূজা পালন করে সমাজে ভালো বার্তা দিচ্ছেন। একজন বলেন, আসলাম নামের এই মুসলিম ব্যক্তি বিগত পাঁচ বছর থেকে এরকম ভাবে গণেশ পূজা পালন করেন । যাকে নিয়ে এই ভিডিও অর্থাৎ আসলাম বলেন, হিন্দু মুসলিমদের মধ্যে কোন ভেদাভেদ থাকা ঠিক নয়, আমরা ভাই ভাই। গণেশ পূজা পালনের মাধ্যমে জাতি ধর্ম নির্বিশেষে সমাজকে একত্রিত এবং মিলে মিশে থাকার বার্তা দিতে চান তিনি।   

পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “এবছর গুজরাটে মুসলমানরা ধুমধামে গণেশ চতুর্থী পালন করেছে, কারণ তারা মনে করে তাদের পূর্ব পুরুষরা হিন্দু ছিলেন।“ 

তথ্য যাচাই করে আমরা জানতে পারি পোস্টের মাধ্যমে করা দাবি ভুয়ো ও ভিত্তিহীন। গুজরাটের আহমেদাবাদ শহরে ২০১৩ সালে মুসলিম ব্যক্তির গণেশ পূজা পালনের ভিডিওকে এবছরের দাবি করে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে। 

ফেসবুক

উল্লেখ্য, হিন্দু শাস্ত্র মতে কৈলাস পর্বত থেকে ভগবান গণেশেরে পৃথিবীতে আগমনকে কেন্দ্র করে গণেশ চতুর্থি উদযাপন করা হয়। সাধারণত বৈদিক স্তোত্র এবং হিন্দু গ্রন্থ মতে প্রার্থনা এবং ব্রত (উপবাস) রেখেই এই পুজা পালন করা হয়। এই পূজা দশ দিন ব্যাপি পালন করা হয়।  

তথ্য যাচাই 

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে ইউটিউবে প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চ করি। ফলাফলে, ‘জানো দুনিয়া’ নামে একটি স্থানীয় হিন্দি সংবাদ মাধ্যমের ইউটিউব চ্যানেলে এর অনুসন্ধান পাওয়া যায়। ভাইরাল ভিডিওটি ২০১৩ সালের ১০ সেপ্টেম্বর আপলোড করা হয়েছে যার শিরোনামে লেখা রয়েছে ‘একজন ধর্মপ্রাণ মুসলমান ৫ বছর ধরে গণেশ চতুর্থী উদযাপন করছেন’। 

এই সুত্র ধরে কিওয়ার্ড সার্চ করতে থাকি। সংবাদ মাধ্যম ‘ডিএনএ’-এর ২০১৩ সালের ১০ সেপ্টেম্বর তারিখের একটি প্রতিবেদনে এই ঘটনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারি। ভিডিওতে যেই মুসলিম ব্যক্তির কথা বলা হচ্ছে তার নাম হল আসলাম মানসুরি। তার বাড়ি গুজরাটের আমেদাবাদ জেলার বাপুনগর কলোনিতে। তিনি গত পাঁচ বছর ধরে গণেশ পূজা উদযাপন করে এসেছেন। শৈশব থেকেই তার জীবন কেটেছে হিন্দু এলাকায়। তার বন্ধুদের মধ্যে বেশির ভাগই হিন্দু। ২০০২ সালের গুজরাট দাঙ্গার সময় হিন্দু প্রতিবেশীরাই তাকে আশ্রয় দিয়েছিল। আসলাম তার সঞ্চিত অর্থের প্রায় ২৫ হাজার টাকা খরচ করে দশদিনের এই উৎসব উদযাপন করেন। তিনি জানান, “আমি আমার বিশ্বাসের কারণে গণেশ পূজা করছি এর মানে এই নয় যে আমি আমার ধর্ম পরিবর্তন করেছি, আমি ইসলামের একনিষ্ঠ অনুসারী।“

download - 2021-09-20T155842.390.png
ডিএনএ প্রতিবেদন আর্কাইভ 

২০১৩ সালে ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে উদযাপিত গনেশ পূজা পালনের ছবি সংক্রান্ত সংবাদমাধ্যম ‘এনডিটিভি’-এর একটি ছবির গ্যালারীতে আহমেদাবাদ শহরে উদযাপিত এই গণেশ পুজার ছবি পাওয়া যায়। 

download - 2021-09-20T160340.972.png
এনডি টিভি প্রতিবেদন  আর্কাইভ 

নিচে উপরোক্ত প্রতিবেদনের ছবি এবং ভাইরাল ভিডিওর স্ক্রিনশটের তুলনা দেওয়া হল।

Compariosn ganesh.jpg

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। গুজরাটের আহমেদাবাদ শহরে ২০১৩ সালে মুসলিম ব্যক্তির গণেশ পূজা পালনের ভিডিওকে এবছরের দাবি করে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে।

Avatar

Title:২০১৩ সালে মুসলিম ব্যক্তির গনেশ পূজা পালনের ভিডিওকে সম্প্রতির বলে ভুয়ো দাবি করা হচ্ছে

Fact Check By: Nasim A 

Result: Missing Context


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *