কেরালার CAA বিরোধী মিছিলের ভিডিওকে ত্রিপুরা হিংসার প্রতিবাদ মিছিল দাবিতে ভুয়ো খবর ছড়ানো হচ্ছে

Communal False

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একটি ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, ত্রিপুরায় মুসলিমদের ওপর অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ মিছিল নেমেছে কেরালার রাস্তায়। ৫ মিনিটের এই ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে একটি মিছিল স্লোগান তুলতে তুলতে এগিয়ে যাচ্ছে। শ্লোগানের ভাষা শুনে দক্ষিণ ভারতীয় কোনও রাজ্যের ভাষা মনে হচ্ছে। এছাড়া ভিডিও নেপথ্যে একটি ইসলামিক গান বাজছে। ভিডিওটিকে এক হাজার বারের বেশি শেয়ার করা হয়েছে এবং ১৫ হাজারের বেশি ভিউজ পড়েছে। 

পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “ত্রিপুরায় মুসলমানদের ঘর বাড়ি মসজিদ মাদ্রাসা আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেওয়া এবং প্রিয় নবী সাঃ এর শানে কুরুচিপূর্ণ শ্লোগান দেওয়ার প্রতিবাদে ভারতের কেরালায় বিশাল বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে!✊✊✊”

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি ভিত্তিহীন এবং বিভ্রান্তিকর। ২০২০ সালের কেরালার মান্নারক্কাদ শহরের একটি CAA বিরোধী মিছিলের ভিডিওকে ত্রিপুরা হিংসার সাথে যুক্ত করে ভুয়ো পোস্ট শেয়ার করা হচ্ছে। 

ফেসবুক

উল্লেখ্য, গত মাসের ১৫ অক্টোবর বাংলাদেশের কুমিল্লা শহরে দুর্গা প্রতিমার পায়ে ইসলামিক ধর্মগ্রন্থ কোরান রাখাকে কেন্দ্র করে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার পরিবেশ তৈরি হয়। এরপর হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলার খবর আসে ওই দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে। এই আক্রমনের বিরুদ্ধে ভারতের অনেক জায়গায় প্রতিবাদ সভা হয়। ২১ অক্টোবর বিশ্ব হিন্দু পরিষদ এবং হিন্দু জাগরণ মঞ্চ-এর নেতৃত্বে ত্রিপুরার গোমতী জেলায় এক বিক্ষোভ প্রদর্শনের মিছিল হিংসাত্মক রুপ ধারন করে যার জেরে বেশ কিছু বাড়ি, দোকান ও মসজিদে হামলা করা হয়। এরপর ২৬ তারিখ বিশ্ব হিন্দু পরিষদ-এর নেতৃত্বে উত্তর ত্রিপুরার পানিসাগর শহরে প্রতিবাদ মিছিল বের করা হয় এবং সেখানেও বিক্ষোভকারীদের কিছুসংখ্যক লোক রোয়া বাজারে কয়েকটি বাড়ি ভাংচুর করে এবমহ কয়েকটি দোকান ও মসজিদে আক্রমণ করে। ৩০ অক্টোবর লক্ষিপুর এবং কইলাশহরে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়।

তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে ভিডিওটিকে কয়েকটি ফ্রেমে ভাগ করে গুগলে রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। ফলাফলে দেখতে পাই ২০২০ সালের ৩ জানুয়ারি তারিখে ‘Nishab Parokkottil’ নামে একটি ইন্সতাগ্রাম হ্যান্ডেল থেকে এই ভিডিওটি শেয়ার করা হয়েছে। পোস্টের ক্যাপশনে মালায়ালাম লেখা রয়েছে, “একা নয়, একসাথে #rejectnrc #rejectcaa #Mannarkkad।‘ 

এই ভিডিওটি থেকে জানতে পারি এটি কেরালা রাজ্যের মান্নারক্কাদ শহরের একটি নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বিরোধী মিছিলের ভিডিও। এরপর ভিডিওটি ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করে দেখতে পাই মিছিলের সামনের ব্যানারে লেখা রয়েছে ‘Protection Rally’। 

16562754-1d9c95e7c8ca8ddd39b9aa68a5c9b996.png

এরপর আমরা ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো মালায়ালাম টিমের সাথে যোগাযোগ করি। তারা জানান এটি মিছিলে ২০২০ সালের নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বিরোধী মিছিলের ভিডিও। ভিডিওতে মালায়ালাম ভাষায় বলা হচ্ছে, “ওট্টক্কাল্লা ওত্তাকেত্তায়ি অর্থাৎ আমরা একা নয় একসাথে আছি। সমস্ত ধর্মকে একইভাবে গ্রহণ করুন এবং ভারতের ধর্মনিরপেক্ষ চিত্রকে বজায় রাখুন। এই মাটিতেই জন্ম আমার, এই মাটিতেই থাকবো।“

এরপর মালায়ালাম টিমের সাহায্য নিয়ে ইউটিউবে একটি এই প্রতিবাদ অন্য একটি ভিডিও খুঁজে পাই। ‘মান্নারক্কাদ লাইভ’ নামে একটি পেজ থেকে ২০২০ সালের ৩ জানুয়ারি শেয়ার করা এই ভিডিওর শিরোনামে মালায়ালাম ভাষায় লেখা রয়েছে, “নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে মান্নারক্কাদে মহামিছিল।“ ভিডিওতর প্রথমেই ‘Protection Rally’ লেখা ব্যানারটি দেখতে পাই। 

নিচে ইউটিউব ভিডিওর স্ক্রিনশট এবং ভাইরাল ভিডিওর স্ক্রিনশট দেওয়া হল।

Comparison Kerala CAA.png

ওপরে দেওয়া সমস্ত তথ্য থেকে প্রমাণিত হয় এই ভিডিওর সাথে ত্রিপুরা হিংসার কোনও সম্পর্ক নেই। এটি কেরালার মান্নারক্কাদ শহরের নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বিরোধী মিছিল। 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। ২০২০ সালের কেরালার মান্নারক্কাদ শহরের একটি CAA বিরোধী মিছিলের ভিডিওকে ত্রিপুরা হিংসার সাথে যুক্ত করে ভুয়ো পোস্ট শেয়ার করা হচ্ছে।

Avatar

Title:কেরালার CAA বিরোধী মিছিলের ভিডিওকে ত্রিপুরা হিংসার প্রতিবাদ মিছিল দাবিতে ভুয়ো খবর ছড়ানো হচ্ছে

Fact Check By: Nasim A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *