অনিমা মুর্মু ২০১৯ সালের সাঁওতালী মাধ্যম উচ্চ মাধ্যমিকে প্রথম হয়েছিল, ২০২১ সালে নয়

Missing Context Social

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একটি পোস্ট শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, এবছরের সাঁওতালি মাধ্যমের উচ্চ মাধ্যমিকে প্রথম স্থানের অধিকারী হয়েছে অনিমা মুর্মু। পোস্টের ছবিতে দেখা যাচ্ছে একজন কমবয়সী মেয়ে দাড়িয়ে রয়েছে এবং তার পাশে একজন বয়স্ক লোক একজন মহিলা রয়েছে। ছবির ওপরেই লেখা রয়েছে, “উচ্চ মাধ্যমিকে সাঁওতালি মাধ্যমে প্রথম হয়েছে অনিমা মুর্মু। 

পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে “অভিনন্দন অনিমা মুর্মু. The topper for this year’s Higher Secondary examination in Santali medium, Anima Murmu”।   

তথ্য যাচাই করে আমরা জানতে পারি পোস্টের মাধ্যমে করা দাবি ভুয়ো ও ভিত্তিহীন। ২০১৯ সালে সাঁওতালি মাধ্যমের উচ্চ মাধ্যমিকে অনিমা মুর্মু নামে একজন মেয়ের প্রথম হওয়ার খবরকে ২০২১ সালের ঘটনা দাবি করে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে।  

ফেসবুক পোস্ট আর্কাইভ 

উল্লেখ্য, কোভিড বাড়বাড়ন্তের জেরে এবছর হয়নি উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা। তাই বিশেষ পদ্ধতিতেই হয়েছে মূল্যায়ন।  উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের প্রকাশ করা ফলাফলে দেখা গেল এবার উচ্চমাধ্যমিকে পাশের হার ৯৭.৬৯ শতাংশ। ছাত্র এবং ছাত্রীদের পাশের হার প্রায় সমান। প্রথম দশে রয়েছেন ৮৬ জন পরীক্ষার্থী। মুর্শিদাবাদের রুমানা সুলতানা ৫০০ মধ্যে ৪৯৯ নম্বর পেয়ে এবার প্রথম হয়েছেন উচ্চমাধ্যমিকে। 

তথ্য যাচাইঃ 

পোস্ট করা ছবিটি ভালো করে লক্ষ্য করলে দেখা যায় ‘নারী কথা’ লেখা একটি লোগো রয়েছে। এই সুত্র ধরে ফেসবুকে এই নামের পেজের ছবি গ্যালিরি খুঁজে দেখি। দেখতে পাই, ২০১৯ সালের ২৮ মে এই ছবি এই ছবিটি পোস্ট করা হয়েছিল। 

“নারী কথা” এর ফেসবুক পোস্ট আর্কাইভ 

এখান থেকে স্পষ্ট বলা যায় ছবিটি সম্প্রতির নয়। এরপরে  গুগলে প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চ করতে থাকি। “বাঁকুড়া” নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে ২৭ মে, ২০১৯ সাল, আপলোড করা একটি ভিডিওতে এর অনুসন্ধান পাওয়া যায়। ভাইরাল ছবির আনিমা মুর্মুকে ভিডিওতে দেখা যায়। ক্যাপশন পড়ে জানতে পারি, ওই বছর সাঁওতালি মাধ্যম উচ্চ মাধ্যমিক পরিক্ষায় যুগ্মভাবে প্রথম হয়েছিল বাঁকুড়া জেলার পন্ডিত রঘুনাথ মূর্মু আবাসিক উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রী অনিমা মুর্মু ও সনকা হেমব্রম।  

এই সুত্র ধরে পন্ডিত রঘুনাথ মূর্মু আবাসিক উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের এর অফিশিয়াল ফেসবুক পেজ খুঁজে বের করি। ২০১৯ সালের ২৯ মে পোস্ট করা একটি ভিডিওতে দেখা যায়, স্কুলের প্রধান শিক্ষক, যুগ্মভাবে প্রথম স্থান অধিকারী সনকা ও অনিমা মুর্মুকে নিয়ে সংবাদ মাধ্যমের সাথে কথা বলেছেন। 

ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো পন্ডিত রঘুনাথ মূর্মু আবাসিক উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কৌশিক চট্টোপাধ্যায় এর সাথে যোগাযোগ করে। তিনি আমাদের জানান, আনিমা মুরমু এর উচ্চ মাধ্যমিকে প্রথম হওয়ার ঘটনাটি সত্য কিন্তু এটি ২০১৯ সালের কথা। এবছরের নয়। 

তিনি আরও স্পষ্ট করেন যে ছবিতে যাকে দেখা যাচ্ছে সেই হল অনিমা মুর্মু। 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। ২০১৯ সালে সাঁওতালি মাধ্যমের উচ্চ মাধ্যমিকে অনিমা মুর্মু নামে একজন মেয়ের প্রথম হওয়ার খবরকে ২০২১ সালের ঘটনা দাবি করে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে।

Avatar

Title:অনিমা মুর্মু ২০১৯ সালের সাঁওতালী মাধ্যম উচ্চ মাধ্যমিকে প্রথম হয়েছিল, ২০২১ সালে নয়

Fact Check By: Nasim A 

Result: Missing Context


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *