হিজাব-বিতর্কঃ কোটি কোটি টাকা দিয়ে মুসকানকে সাহায্য করল মমতা ব্যানার্জি? জানুন সত্যতা

False Political

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, হিজাব-বিতর্কের পর মুসকানকে কোটি কোটি টাকার সাহায্য করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। হিজাব-বিতর্কে ভাইরাল হওয়া মুসকানের ভিডিও এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনেকগুলি ছবি কোলাজ ৩ মিনিট ৫৪ সেকেন্ডের এই ভিডিওটি বানানো হয়েছে। ভিডিওতে ভয়েস ওভারে বলা হচ্ছে, মুসকানের প্রতিবাদে খুশি হয়ে কোটি কোটি তাকে কোটি কোটি টাকার সাহায্য করলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী। এছাড়া, মুসকান, ভারতীয় মুসলিম এবং বিজেপি সরকার নিয়ে কিছু মন্তব্য করা হয়েছে।

পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছেঃ এইমাত্র মুসকান খানকে নিয়ে একি বললেন মমতা ব্যানার্জি I কোটি কোটি টাকা সাহায্য পেলেন মুসকান খান II

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি ভিত্তিহীন এবং বিভ্রান্তিকর। মমতা ব্যানার্জির মুসকানকে কোটি কোটি টাকার সাহায্য করার খবরটি একেবারেই ভুয়ো। 

ফেসবুক পোস্ট

উল্লেখ্য, কর্ণাটকে উদুপির একটি সরকারি প্রি-ইউনিভার্সিটি কলেজে শ্রেণীকক্ষে হিজাব পরে আসা ছাত্রীদের কলেজ চত্বরের বাইরে চলে যেতে বলা হয়। এই ঘটনার পরেই দেশজুড়ে শুরু হয় হিজাব-বিতর্ক। দক্ষিণপন্থী সংগঠনগুলি হিজাব পরে ছাত্রীদের ক্লাসে আসার বিরোধিতা করতে শুরু করে। কর্ণাটকের ম্যান্ডার পিইএস কলেজে একজন ছাত্রী কলেজে আসার পথ তাকে হেনস্থা করতে শুরু করে দক্ষিণপন্থী ছাত্রের একটি দল। মেয়েটিকে দেখে তারা ‘জয় শ্রী রাম, জয় শ্রী রাম’ চিৎকার করতে থাকে। উত্তরে মেয়েটি ‘আল্লাহু আকবর’ স্লোগান তোলে। এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর হিজাব-বিতর্কের মুখ হয়ে যায় মুসকান হিজাব পরিহিত এই কলেজ ছাত্রী। বিস্তারিত…।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে হিজাব বা অন্য কোনও ধর্মীয় পোশাক পরা যাবে কিনা এই নিয়ে বর্তমানে কর্ণাটক হাইকোর্টে শুনানি চলছে। আগামী সোমবার ফের এই মামলার শুনানি চালু হবে। আপাতত, এই মামলায় হাইকোর্টের চূড়ান্ত রায় না আসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে হিজাব বা গেরুয়া উত্তরীয় জাতীয় ধর্মীয় পোশাক পরা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। পড়ুন বিস্তারিত। 

ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো বাংলা এর আগে হিজাব-বিতর্ক নিয়ে ছড়ানো বেশ কয়েকটি ভুয়ো খবরের তথ্য যাচাই করে সেগুলিকে ভুয়ো প্রমাণ করে। ফ্যাক্ট চেকগুলি পড়ুন এখানে, এখানে, এখানে এবং এখানে

তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে প্রথমে আমরা গুগলে কিওয়ার্ড সার্চ করি। ফলাফলে ‘ডেইলি সালার’ নামে একটি স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের ইউটিউব চ্যানেলে এই সম্পর্কিত একটি ভিডিও দেখতে পাই, ভিডিওর শিরোনামে লেখা রয়েছে, “Karnataka Hijab Row | Hijab Girl | Fake News | Muskan Father’s Appeal | Salman Khan |”

ভিডিওতে দেখা যায় হিজাব-বিতর্কে ভাইরাল মুসকানের বাবা মোহাম্মাদ হুসেইন খান বলেন, “আমি টুইটারে দেখতে পাচ্ছি সলমান খান ৩ কোটি দিয়েছেন, ইনি দিয়েছেন, উনি দিয়েছেন। আমি সবাইকে অনুরোধ করে বলছি এই সব শেয়ার করবেন না, এগুলি ফালতু ফেক নিউজ।”

ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো মুসকানের বাবা মোহাম্মাদ হুসেইন খানের সাথে যোগাযোগ করে। তিনি আমাদের জানান, “ভাইরাল দাবিটি ভুয়ো। মুসকানকে কেউ কোনও টাকা দেয়নি।”

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। মমতা ব্যানার্জির মুসকানকে কোটি কোটি টাকার সাহায্য করার খবরটি একেবারেই ভুয়ো।

Avatar

Title:হিজাব-বিতর্কঃ কোটি কোটি টাকা দিয়ে মুসকানকে সাহায্য করল মমতা ব্যানার্জি? জানুন সত্যতা

Fact Check By: Rahul A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published.