আমেরিকার হ্যারিকেনের ভিডিওকে ঘূর্ণিঝড় যশ দাবি করে ভুয়ো ভিডিও শেয়ার

False Social

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যেম একটি পুরনো ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, ঘূর্ণিঝড় যশ বাংলাদেশে তাণ্ডব শুরু করেছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে ঝড়ো হাওয়ার সাথে প্রচুর বৃষ্টিপাত হচ্ছে এবং বাড়ির ছাদ উড়ে যাচ্ছে। পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “তান্ডব শুরু করছে ঘূর্ণিঝড় যশ!!!বাংলাদেশের বিভিন্ন যায়গায় ভয়ংকর ঝড়বৃষ্টি শুরু।“

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি ভিত্তিহীন এবং বিভ্রান্তিকর। ২০১৮ সালের ফ্লোরিডার হ্যারিকেন মাইকেলের ভিডিওকে ঘূর্ণিঝড় যশের তান্ডব দাবি করে ভুয়া পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে। 

ফেসবুক পোস্ট 

প্রসঙ্গত, পশ্চিমবঙ্গ এবং উড়িষ্যা রাজ্যে গত ২৬ মে ঘূর্ণিঝড় যশ আছড়ে পড়ে। সকাল সাড়ে নটা নাগাদ ওড়িশার বালেশ্বর ও ধামড়ার মধ্যে উপকূলে আছড়ে পড়ে ঘূর্ণিঝড়। নির্ধারিত সময়ের অনেকটা আগেই সকাল ৯টা ১৫ মিনিটে স্থলভাগে আছড়ে পড়ে ঘূর্ণিঝড় যশ। ল্যান্ডফলের সময় ঝড়ের গতি ছিল ঘণ্টায় ১৩০-১৪০ কিলোমিটার। সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ১৫৫ কিলোমিটার। উড়িষ্যায় দুজনের মৃত্যু হয়। 

তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে ভিডিওটিকে ‘ইনভিড-উই-ভেরিফাই’ টুলে কয়েকটি ফ্রেমে ভাগ করে গুগলে রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। ফলাফলে ইউটিউবে এর সন্ধান পাওয়া যায়। চার মিনিটের এই ভিডিওর ৫২ সেকেন্ড পর থেকে ফেসবুকের ভাইরাল ভিডিওর দৃশ্য দেখতে পাওয়া যায়। ২০১৮ সালের আপলোড করা এই ভিডিওর শীর্ষকে লেখা রয়েছে, “ক্যাটাগরি ৫ হ্যারিকেন মাইকেলের ৪কে ভিডিও।“ অর্থাৎ, এর থেকে আমরা জানতে পারি এটি ‘মাইকেল’ নামে একটি হ্যারিকেনের ভিডিও। 

এরপর কিওয়ার্ড সার্চ করে সংবাদ মাধ্যম ‘সিবিএস ১২’ –এর একটি প্রতিবেদনে ভাইরাল ভিডিওর দৃশ্য দেখতে পাই। এটিকে পানামা সিটি বিচের একটি বাড়ির ছাদ উড়ে যাওয়ার দৃশ্য বলে দাবি করা হয়েছে। আরও জানতে পারি, ২০১৮ সালে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের সমুদ্র উপকূলবর্তী অঙ্গরাজ্য ফ্লোরিডায় ক্যাটাগরি ৫ মাইকেল আছড়ে পড়ে। ৭৪ জন প্রান প্রায় হারায় এবং প্রচুর টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়। 

Panama city beach roof.png
প্রতিবেদন আর্কাইভ

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত সত্য নয়। ২০১৮ সালের ফ্লোরিডার হ্যারিকেন মাইকেলের ভিডিওকে ঘূর্ণিঝড় যশের তান্ডব দাবি করে ভুয়া পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে।

Avatar

Title:আমেরিকার হ্যারিকেনের ভিডিওকে ঘূর্ণিঝড় যশ দাবি করে ভুয়ো ভিডিও শেয়ার

Fact Check By: Nasim A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *