হাথরাস নির্মম ধর্ষণ কান্ডের অভিযুক্ত সন্দীপের বাবা দাবি করে ভুয়ো ছবি শেয়ার

False Social

হাথরাসের জঘন্য ধর্ষণকান্ডের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় কয়েকটি ছবি শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, ছবিতে চিহ্নিত ব্যক্তিটি, যাকে যোগী আদিত্যনাথের পাশে দেখা যাচ্ছে, হলেন এই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত সন্দীপের বাবা। ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো তথ্য যাচাই করে দেখতে পেয়েছে এই দাবি ভুয়ো এবং বিভ্রান্তিকর। 

উত্তরপ্রদেশের হাথরাসের একটি নির্মম এবং পাশবিক ঘটনায় একজন ১৯ বছর বয়সী তরুণীকে গনধর্ষণ করে তাকে গুরুতর ভাবে জখম করা হয়। এরপর দিল্লীর সফদরজঙ্গ হাসপাতালে কিছুদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর তার মৃত্যু হয়। তার পরেই নির্যাতিতা তরুণীর ন্যায়ের দাবিতে আওয়াজ উঠে দেশজুড়ে।

আর্কাইভ 

বাংলা ভাষাতেও এই ছবিগুলিকে একই ভুয়ো দাবির সাথে শেয়ার করা হয়েছে।

Sandip Father claim.png
ফেসবুক | আর্কাইভ

তথ্য যাচাই:

অনুসন্ধান করে আমরা জানতে পারি, ছবিতে যোগী আদিত্যনাথের পাশে থাকা ব্যক্তিটির নাম হল শ্যাম প্রকাশ দ্বিবেদী। তিনি একজন বিজেপি নেতা। 

গুগলে কিওয়ার্ড সার্চ করে হাথরাস নির্মম ধর্ষণ কান্ডের অভিযুক্তদের নাম অনুসন্ধান করার চেষ্টা করি। সংবাদমাধ্যম ‘ইন্ডিয়া টুডে’-এর একটি প্রতিবেদন (আর্কাইভ) থেকে জানতে পারি, এই ঘটনার চারজন মূল অভিযুক্তের নাম হল

  • সন্দীপ 
  • রামু
  • লবকুশ
  • রবি

এই চারজনের অভিযুক্তের ছবি এবং এদের সম্বন্ধে আরও জানতে হিন্দি সংবাদমাধ্যম ‘আজ তক’-এর এই নিউজ বুলেটিনটি দেখুন। 

image1.png

হাথরাস পুলিশের অফিসিয়াল টুইটার আকাউন্টে শেয়ার করা জেলাশাসক তথা হাথরাস পুলিশ অধীক্ষকের এই ঘটনার মর্মে দেওয়া বিবৃতি শুনুন।   

আর্কাইভ

সংবাদমাধ্যম ‘The Wire’ এর একটি প্রতিবেদন (আর্কাইভ) থেকে জানতে পারি, হাথরাসের বর্বরতার ঘটনায় চারজন মূল অভিযুক্তই ঠাকুর পরিবারের সদস্য। এই ঠাকুর পরিবারকে সমাজে উঁচু জাতি বলে গন্য করা হয়ে থাকে। 

image2.png

এই সমস্ত নিউজ রিপোর্ট থেকে ইঙ্গিত পাওয়া যায় যে, চারজন অভিযুক্তই ঠাকুর পরিবারের ছেলে। কিন্তু বিজেপি নেতা শ্যাম প্রকাশ ত্রিবেদীর সাথে এদের সম্পর্ক রয়েছে কিনা তা স্পষ্ট হয়না। 

এই বিষয়ে স্পষ্টীকরণের জন্য ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো হাথরাস থানার নতুন এসপি ‘বিনীত জৈসওয়াল’-এর সাথে যোগাযোগ করে। তিনি জানান,
“এই ঘটনায় জড়িত চারজন অভিযুক্তই হাথরাসের বাসিন্দা। এদের কারোরই০ বাবার নাম শ্যামপ্রকাশ ত্রিবেদী নয় এবং এদের কারোরই বাবা কোনও বিজেপি নেতা নয়। সোশ্যাল মিডিয়া যে দাবিটি করা হচ্ছে সেটি ভুয়ো। এই চারজন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে জেলে ঢোকানো হয়েছে।“    

এই ঘটনার মর্মে হাজা থানায় দায়ের করা মামলার ছবি তিনি আমাদের পাঠান। ছবিতে স্পষ্টভাবে দেখা যাচ্ছে অভিযুক্ত সন্দীপের বাবার নাম সুনীল ওরফে গুড্ডু। 

image4.png

এরপর আমরা অভিযুক্ত সন্দীপের বাবা দাবি করা ব্যক্তিটির পরিচয় খোঁজার চেষ্টা করি। গুগলে রিভার্স ইমেজ সার্চ করে শ্যাম প্রকাশ দ্বিবেদী নামের একটি টুইটার অ্যাকাউন্টে পোস্টের ছবিগুলিকে দেখতে পাই। 

আর্কাইভ 

আর্কাইভ 

শ্যাম প্রকাশ দ্বিবেদী নামের একটি ফেসবুক প্রোফাইলেও এই ছবিগুলি দেখতে পাওয়া যায়। এই একই নামের অন্য একটি ফেসবুকে পেজে বিভিন্ন উচ্চপদস্থ বিজেপি নেতার সাথে তোলা শ্যাম প্রকাশ দ্বিবেদীর আরও কিছু ছবি দেখতে পাই। 

image5.png
আর্কাইভ

কে এই শ্যাম প্রকাশ দ্বিবেদী? 

শ্যাম প্রকাশ দ্বিবেদীর ফেসবুক এবং টুইটার বায়ো অনুযায়ী, তিনি হলেন উত্তরপ্রদেশের প্রয়াগরাজের একজন বরিষ্ঠ নেতা। গুগলে কিওয়ার্ড সার্চ করে শ্যাম প্রকাশ দ্বিবেদীর ওপর লেখা বেশ কয়েকটি প্রতিবেদন দেখতে পাওয়া যায়। জি নিউজ (আর্কাইভ) এবং ডিএনএ (আর্কাইভ) দ্বারা প্রকাশিত ২০২০ সালের ১৬ সেপ্টেম্বরের প্রতিবেদন অনুযায়ী,  শ্যাম প্রকাশ দ্বিবেদী একটি গনধর্ষণের মামলার একজন অভিযুক্ত। প্রয়াগরাজ পুলিশ ১৬ সেপ্টেম্বর তার বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করে। 

এরপর আমরা প্রয়াগরাজের বিজেপি অধ্যক্ষ অশ্বনী দুবের সাথে যোগাযোগ করি। তিনি বলেন,
“ভাইরাল হওয়া ছবির ব্যক্তিটির নাম শ্যাম প্রকাশ দ্বিবেদী। আমি তাকে খুব ভালভাবে চিনি কারন তার বাবা রাম রক্ষা দ্বিবেদী প্রয়াগরাজের জেলা অধ্যক্ষ ছিলেন। হাথরাস ঘটনার সাথে শ্যাম প্রকাশের কোনও সম্পর্ক নেই।“

এরপর ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো শ্যাম প্রকাশ দ্বিবেদীর বাবা রাম রক্ষা দ্বিবেদীর সাথে যোগাযোগ করে। তিনি আমাদের নিশ্চিত করেন যে ছবির ব্যক্তিটি তার ছেলে শ্যাম প্রকাশ। তিনি আরও বলে শ্যাম প্রকাশের দুটি সন্তান রয়েছে এবং তারা বয়সে খুব ছোট। 

এরপর আমরা এলাহাবাদের কার্নলগঞ্জ থানার সার্কেল অফিসার অজয় দীক্ষিতের সাথে যোগাযোগ করি। তিনি আমাদের জানান,
“একটি গনধর্ষণের মামলায় শ্যাম প্রকাশ দ্বিবেদীকে অভিযুক্ত করা হয়েছিল। ১৬ সেপ্টেম্বর কার্নলগঞ্জ থানায় তার বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করা হয়। এরপর তাকে গ্রেফতার করার জন্য আমরা তার বাড়িতে যাই কিন্তু তাকে পাওয়া যায় না।“ 

তাকে হাথরাশ নির্মম ধর্ষণকান্ড এবং শ্যাম প্রকাশের ছেলের ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করায় তিনি বলেন,
“শ্যাম প্রকাশের মোট দুটি সন্তান। মেয়ের বয়স ১৩-১৪ এবং ছেলের বয়স চার। দুজনেই খুব ছোট। তাকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় যে দাবি করা হচ্ছে তা একেবারেই ভুয়ো।“ 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল। শ্যাম প্রকাশ দ্বিবেদী নামে একজন বিজেপি নেতার ছবিকে হাথরাস নির্মম ধর্ষণ কান্ডের অভিযুক্ত সন্দীপের বাবার দাবি করে ভুয়ো পোস্ট শেয়ার করা হচ্ছে। 

Avatar

Title:হাথরাস নির্মম ধর্ষণ কান্ডের অভিযুক্ত সন্দীপের বাবা দাবি করে ভুয়ো ছবি শেয়ার

Fact Check By: Rahul A 

Result: False


Leave a Reply

Your email address will not be published.